বুধবার, ২৮ জানুয়ারি ২০১৫ ।

‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত সর্দার নিহত

সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় অস্ত্র উদ্ধার অভিযানে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক ডাকাত সর্দার নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন দুই পুলিশ সদস্য। বুধবার ভোর সাড়ে তিনটার দিকে উপজেলার পাটকেলঘাটা থানাধীন অভয়তলা ক্লাবের পিছনে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শুটারগান, দুই রাউন্ড বন্দুকের গুলি, তিনটি গুলির খোসা ও একটি চাপাতি উদ্ধার করেছে। নিহত রফিকুল ইসলাম (৩৮) তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা থানাধীন নকাটি গ্রামের বাবুর আলী মোড়লের ছেলে। আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন- আজিবর রহমান(৩৬) ও কবীর হোসেন (৩০)। পাটকেলঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম জানান, সম্প্রতি কুমিরার দাঁতপুর মোল্লাবাড়িতে ডাকাতি সংগঠিত হয়। এ ঘটনায় সন্দিগ্ধ আসামি হিসেবে রফিকুল ইসলামকে মঙ্গলবার বিকেলে তার বাড়ির পাশ থেকে আটক করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি কেশবপুর, মনিরামপুর, অভয়নগর, পাটকেলঘাটা, কলারোয়াসহ বিভিন্ন থানায় কমপক্ষে ১৩টি ডাকাতির ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন।

২৩তম দিন পার করছে অবরোধ

৫ জানুয়ারি ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ উপলক্ষে সমাবেশ করতে না দেয়া ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে তার কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখার প্রতিবাদে ডাকা অনির্দিষ্টকালের অবরোধ কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে। বুধবার ২৩তম দিন অতিবাহিত করছে অবরোধ। অবরোধের সমর্থনে রাজধানীর মালিবাগে মিছিল করেছে জামায়াত। বুধবার সকাল পৌনে ৮টায় এর মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি মালিবাগ শহীদী মসজিদের সামনে থেকে শুরু হয়ে আবুল হোটেলের সামনে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে এক সংকিআষপ্ত সমাবেশে মিলিত হন নেতাকর্মীরা।

ছোট ভাইয়ের জন্য দোয়া চাইলেন তারেক

বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর আত্মার মাগফেরাত কামনা করে লন্ডনে মিলাদ ও দোয়ার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। পূর্ব লন্ডনের ব্রিকলেইন জামে মসজিদে আয়োজিত এ মিলাদ মাহফিলে অংশ নেন বড় ভাই ও বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান। মঙ্গলবার বাদ আসর জিয়া পরিবারের উদ্যোগে এই দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। মিলাদ মাহফিলে তারেক রহমান ছোট ভাই আরাফাত রহমান কোকোর জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন। এছাড়াও মা খালেদা জিয়া ও নিজের পরিবারের জন্য দোয়া চান আল্লাহ যেন তাদের পরিবারকে এই শোক ও কষ্ট সইবার শক্তি দেন। মিলাদ মাহফিলে বাবা জিয়াউর রহমানের জন্যও দোয়া চেয়েছেন তারেক। একই সঙ্গে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে বাংলাদেশে চলমান আন্দোলনে যারা মারা গেছে আল্লাহর দরবারে তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন তিনি। তাদের জন্যও দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন। তাদের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন তারেক রহমান। মিলাদ মাহফিলে যুক্তরাজ্য বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার প্রবাসী বাংলাদেশিরা অংশ নেন।
দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ ও র‌্যাবে লোকবল বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট বাহিনীর কর্মকর্তারা। মঙ্গলবার পুলিশ সপ্তাহ উপলক্ষে রাজারবাগ পুলিশ লাইনস অডিটোরিয়ামে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ও স্বরাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বৈঠকে এ দাবি উত্থাপন করা হয়। বৈঠকে পুলিশ কর্মকর্তারা বলেছেন, কাজের সুবিধার্থে পুলিশে আরো চারটি পুলিশ-লাইনস প্রয়োজন। গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) অফিসের আরো আধুনিকায়ন করা দরকার। মাঠ পর্যায়ের পুলিশ সদস্যদের পাশাপাশি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদেরও নিরাপত্তা বাড়াতে হবে। প্রয়োজনে ঝুঁকি ভাতা দিতে হবে। র‌্যাবের কর্মকর্তারা বলেন, এ সংস্থায়ও জনবল সঙ্কট প্রকট হচ্ছে। বৈঠকে ডিআইজি ও পুলিশ সুপাররা সার্বিক সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে খোলামেলা কথা বলেন। এসময় পুলিশের মহাপরিদর্শক একেএম শদিদুল হক ও অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন) মোখলেছুর রহমানও উপস্থিত ছিলেন।
রাজশাহী মহানগরীর আসাম কলোনী এলাকায় ৫ কাঠা জমির ওপরে গৃহবধূ দিবা আক্তারের বাড়ি। বাড়িটি আড়াই কাঠা জমির ওপরে। আর অবশিষ্ট জমির ওপরে দিবা গড়ে তুলেছেন ফলমূল ও সবজির বাগান। শুধু তা না বাড়ির একটি রুমে কোয়েল পাখির চাষ। যা থেকে দিবা আক্তারের ৬ সদস্যের পরিবারের আমিষের চাহিদার অনেকখানি মিটিয়ে যায়। আড়াই কাঠা জমির ওপরে গড়ে তুলেছেন সবজির বাগান। সবজির পাশাপাশি আছে অনেক ধরনের ফলের গাছ। যা থেকে হরেক ফলের চাহিদা মেটে। আছে নারিকেল, সফেদার, কমলালেবু, ডালিম, লেবু, আম, পেয়ারা, পেঁপে গাছ। সবজির মধ্যে আছে টমেটো, বেগুন, ফুলকপি, মরিচ, লাউসহ অনেক ধরনের সবজির গাছ। সবজির বাগান নয়। এ যেনো পুষ্টির বাগান। দিবা আক্তার জানান, তার স্বামী ইউনুস আলী ও তিনি মিলে অনেক শখের বসেই একবছর আগে সবজির বাগানটি তিনি শুরু করেছিলেন। সবজির বাগানে মৌসুমি সবজির চাষ বেশি হয়ে থাকে। এখন সেই সখের বাগানই তার পরিবারের পুষ্টি মেটানোর বড় উৎস। সবজি ও ফলমূলের পাশাপাশি বাড়ির আলাদা একটি রুমে তিনি করেছেন কোয়েল ও বাজরিকা পাখি পালন। বর্তমানে তার কাছে ১৫টি কোয়েলের পাখি আছে। তা থেকেই আমিষের অনেকটা চাহিদা পূরণ হয়।
ব্যস্ততম দিনের শুরুতে হাতে জমে যাবে অনেকগুলো কাজের রুটিন। কিছু কাজ অপরকে দিয়ে করাতে হতে পারে। তবে আপনার দুরদৃষ্টি সব কিছুর হিসেব মিলিয়ে দেবে মুহূর্তেই, যা নিজেও ভাবতে পারছেন না। সঙ্গীনীর প্রতি দিন দিন অবহেলা বেড়ে চলেছে, টেরই পাননি। সন্ধ্যায় পাওয়া সুযোগে পুষিয়ে দিন তাদের না ক্ষোভ। অর্থভাগ্য চলবে কোনোমতে তবে বিশেষ কোনো ক্ষতির আশঙ্কা নেই। বেকারদের কারো স্বপ্ন পূরনের দিন আজ।
গুলশানে নিজ কার্যালয়ে ছেলে আরাফাত রহমান কোকোকে চোখের জলে বিদায় জানালেন শোকে মুহ্যমান মা খালেদা জিয়া ও পরিবারের অন্য সদস্যরা। মরদেহকে পাশে রেখে খালেদার মোনাজাতের পর কোকোর মরদেহ জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে বাদ আসর জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে মঙ্গলবার বেলা ১টা ৪০ মিনিটে কোকোর লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্স প্রবেশ করে গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে। ১টা ৪৮ মিনিটে অ্যাম্বুলেন্স থেকে মরদেহ নামানো হয়। সোয়া ২টায় ছেলের লাশ দেখতে নিচে নামেন খালেদা জিয়া। হৃদয়ের সবটুকু স্নেহ ঢেলে দিয়ে বরণ করে নেন নাড়িছেঁড়া ধনকে। তবে যে কোকোকে আজ তিনি কাছে পেলেন তা তিনি চাননি কখনো।
বিএনপি চেয়ারপারসনের ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর জানাজায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলসহ সব শ্রেণী-পেশার মানুষ অংশ নিলেও যাননি সরকারি দল আওয়ামী লীগের নেতারা। জানাজায় অংশ না নেয়ার বিষয়টি বাংলামেইলকে আগেই নিশ্চিত করেছিলেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ। মঙ্গলবার বাদ আসর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে কোকোর দ্বিতীয় জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইমামতি করেন বায়তুল মোকাররম মসজিদের খতিব অধ্যাপক মাওলানা মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। জানাজার আগে শাহে আলম মুরাদকে ফোন করা হলে তিনি বাংলামেইলকে বলেন, ‘আমাদের নেত্রীকে তারা (বিএনপি) অপমান করেছে, তাহলে কেন সেই জানাজায় যাবো?’
টঙ্গীর তুরাগ তীরে তাবলীগ জামাতের বিশ্ব ইজতেমায় নারীদের অংশ নেয়ার সুযোগ না থাকায় নাটোরে নবম বারের মতো নারী ইজতেমা শুরু হয়েছে। বড়াইগ্রাম উপজেলার মৌখাড়া ইসলামিয়া মহিলা ডিগ্রি কলেজ মাঠে মঙ্গলবার সকাল ১০টায় স্থানীয় ইমাম আব্দুল মোতালেবের আমবয়ানের মাধ্যদিয়ে এ ইজতেমা শুরু হয়। ইজতেমার প্রথম দিনই দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আসা হাজারো মুসল্লির পাশাপাশি ভারত থেকেও অনেক নারী মুসল্লি অংশ নিয়েছেন। চলছে বয়ান। গেলো আট বছর ধরে এ ইজতেমা দুই দিনব্যাপী হয়ে আসছিল। এবারই প্রথম তিন দিনব্যাপী ইজতেমা করার সিদ্ধান্ত নেয় আয়োজকরা। তারা জানায়, ইজতেমায় প্রধান আলোচক হিসাবে বয়ান করবেন চট্টগ্রামের দেলোয়ার হোসেন যুক্তিবাদী। এছাড়া পাবনার মাওলানা আমজাদ হোসেন, মেহেদী হাসান, বগুড়ার রাবেয়া বসরী ও রাজশাহীর ফাতেমা খাতুন বয়ান করবেন। ২৯ জানুয়ারি বৃহস্পতিবা

বিশ্বকাপ থেকে সরে দাঁড়ালেন নারাইন

ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুঃস্বপ্ন সম্ভবত আর কমছেই না। বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে এমনিতেই বাদ দেয়া হয়েছে ডোয়াইন ব্রাভো এবং কিয়েরন পোলার্ডকে। এবার বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন বিশ্বের অন্যতম সেরা স্পিনার সুনিল নারাইন। নিজের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে আরও কাজ করতে হবে এবং এ নিয়ে আরও সময় লাগবে বলেই নিজেকে প্রত্যাহার করে নিয়েছেন তিনি। বিশ্বকাপের আর মাত্র ১৭দিন বাকি। এ সময় এসে হঠাৎ নারিন নিজেকে সরিয়ে নেওয়ায় নিশ্চিত বিপদের মুখে পড়ে গেলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

অস্ট্রেলিয়ায় মাশরাফিদের নতুন যাত্রা

অস্ট্রেলিয়ার কন্ডিশনের সাথে নিজেদের মানিয়ে নিতে ব্রিসবেনে অনুশীলন শুরু করেছে মাশরাফি বাহিনী। অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার পর এক দিনের বিশ্রাম শেষে মঙ্গলবার থেকেই বিশ্বকাপ প্রস্তুতি শুরু করেছে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। লক্ষ্য সেখানকার ভিন্ন কন্ডিশনের সাথে নিজের মানিয়ে নিয়ে বিশ্বকাপে ভালো কিছু করা। ঘরের মাঠে টানা ১২ দিনের কঠোর অনুশীলন শেষে সোমবার অস্ট্রেলিয়া পৌঁছায় হাথুরুসিংহের শীর্ষরা। অস্ট্রেলিয়ার স্থানীয় সময় সকাল ১০টা থেকে ব্রিসবেনে অ্যালান বোর্ডার গ্রাউন্ডে অনুশীন করেছে সাকিব-মুশফিকরা। সকাল থেকে টানা তিন ঘণ্টা নেটে ব্যাটিং-বোলিংয়ে অনুশীলন করে। অনুশীলন শুরুর পূর্বে নিয়মত্রান্ত্রিকভাবেই টিম মিটিং করে মাশরাফিরা। এরপরই অনুশীলনে নেমে পড়ে ক্রিকেটাররা। নেটে অনুশীলনে হিথ স্টিকের বোলিং স্কোয়াডের বিপক্ষে ব্যাটিং করে ‍মুশফিকরা।

দশটি বিষয়- বিশ্বকাপে যা নতুন

সময়ের সাথে সাথে বদলে যায় অনেক কিছুই। সংস্কার ও পরিবর্তনের রঙ লাগে খেলাধুলার অন্দর-বাহিরেও। যুক্ত হয় অনেক নতুন নিয়ম, বাদ পড়ে সেকেলে কিছু রীতি। বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানে অনুষ্ঠিত ২০১১ বিশ্বকাপ থেকে আসন্ন ২০১৫ সালের অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপেও এমন কিছু সংযোজন-বিয়োজন দেখা যাবে।

সালমানের সঙ্গে অনন্ত দাঁড়ালেও লাভ হবে না

বর্তমান সময়ের বাংলা চলচ্চিত্রের ব্যস্ততম অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস। এ পর্যন্ত প্রায় শতাধিক ছবিতে অভিনয় করেছেন। সম্প্রতি তার বর্তমান ব্যস্ততা, নতুন ছবিতে অভিনয় সেই সঙ্গে বাংলা চলচ্চিত্রকে টিকিয়ে রাখার আন্দোলন এবং নিজের ক্যারিয়ারসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মুখোমুখি হয়েছিলেন বাংলামেইলের। ফেস টু ফেসের আজকের অতিথি তিনি।

পুরুষের চেয়ে নারী কেন বেশিদিন বাঁচে?

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে দাম্পত্য জীবনের শেষ দিকে অধিকাংশ নারীকেই একা থাকতে হয়। প্রকৃতির নিয়ম মেনে যুগের পর যুগ নারীরা যেন তাদের সঙ্গী হারিয়ে বিধবা জীবন পার করছেন। অপরদিকে পুরুষদের ক্ষেত্রে এই মাত্রাটা উল্লেখযোগ্যহারে কম দেখা যায়। কারণ হিসেবে দেখা গেছে, পুরুষরা নারীকে একা করে আগেভাগেই পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করেন। এই প্রবণতা শুধু বাংলাদেশে নয়, পৃথিবীর অন্যান্য দেশেও রয়েছে সমান হারে।
চলমান হরতাল-অবরোধে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে একের পর এক যানবাহনে আগুন দেয়া হচ্ছে। পুড়িয়ে মারা হচ্ছে নিরীহ মানুষকে। আগুন দেয়ার সময় ব্যবহার করা হচ্ছে গান পাউডার। আগুন দিয়ে দুর্বৃত্তরা চোখের নিমিষে সটকে পড়ছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কঠোর নিরাপত্তা ও সতর্ক প্রহরাও তাদের রুখতে পারছে না। দেশে বিভিন্ন সময়ে আন্দোলনের নামে গান পাউডার ব্যবহার করে মানুষ পুড়িয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। গত কয়েক বছরে এর ব্যবহারের মাত্রা অনিয়মিত হলেও সাম্প্রতিক সময়ে তা বৃদ্ধি পেয়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, যানবাহনে আগুন দেয়ার ক্ষেত্রে দুর্বৃত্তরা প্রধানত পেট্রোল ও গান পাউডার ব্যবহার করছে। গান পাউডার ব্যবহার করায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে এবং তার ক্ষয়ক্ষতি ও ভয়াবহতা বাড়ছে। পেট্রোল সবার কাছে পরিচিত হলেও গান পাউডার নিয়ে মানুষের মধ্যে কৌতূহল রয়েছে। কারো কারো প্রশ্ন কোথায় ব্যবহার হয় এই গান পাউডার? দুর্বৃত্তদের হাতেই বা কিভাবে পৌঁছে যাচ্ছে এই পাউডার? কিভাবে এতো শক্তিশালী বিস্ফোরকে পরিণত হয় এটি?

প্রাণঘাতী গান পাউডার আসলে কী?

দেশের একমাত্র রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল অপারেটর টেলিটক থ্রিজি সেবা চালু করার পর এখন গ্রাহক সংখ্যা বাড়ছে। যদিও অন্য অপারেটরদের তুলনায় গ্রাহক সংখ্যা থেকে পিছিয়ে আছে টেলিটক। একমাত্র রাষ্ট্রয়াত্ব অপারেটর টেলিটক প্রথম থ্রিজি সেবা চালু করলেও সাফল্য তুলনামূলকভাবে কম। ২০১৪ সালের নভেম্বর পর্যন্ত ৩৮ লাখ গ্রাহক টেলিটকের (বিটিআরসির তথ্য মতে)। কোন পথে এগুচ্ছে টেলিটক, গ্রাহক বৃদ্ধিতে কি উদ্যোগ? এমন সব প্রশ্নের উত্তর দিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো. ফয়জুর রহমান চৌধুরী।

সরকার জনগণের কাছে দায়বদ্ধ, বিটিআরসি নয়

৫ জানুয়ারি গণতন্ত্র হত্যা দিবস পালনের অনুমতি না দেয়া এবং বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে অবরুদ্ধ করে রাখার প্রতিবাদে দেশব্যাপী চলছে টানা অবরোধ ও হরতাল। আর এ কর্মসূচির কারণে স্থবির হয়ে পড়েছে দেশ। এতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়েছে দেশের ব্যবসায়ীরা। যার মধ্যে সময় মতো পণ্যের শিপমেন্ট করতে না পারায় আবারো আন্তর্জাতিকভাবে ইমেজ সঙ্কটের পড়েছে দেশের পোশাক শিল্পখাত। বর্তমান অবস্থার কারণে সর্বনিম্ন ১০ থেকে সর্বোচ্চ ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ডিসকাউন্ট দাবি করছে বিদেশি ক্রেতারা। সেই সঙ্গে থাকছে অধিক খরচের বিমানযোগে পণ্য পাঠানোর দাবি। এ অবস্থায় ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে বলে দাবি গার্মেন্টস মালিকদের। দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে বড় ধরণের ভূমিকা রাখা এ খাতটি একের পর এক সঙ্কটের মুখে পড়ছে। ঢাকায় রানা প্লাজা ধসের ঘটনার পর আন্তর্জাতিকভাবে ভয়াবহ ইমেজ সঙ্কটের কবলে পড়েছিল গার্মেন্টস মালিকেরা। সেই সঙ্কট কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই যুক্ত হয়েছে ২০ দলের টানা অবরোধ কর্মসূচি। বিজিএমইএর পক্ষ থেকে জানানো হয়, এবারের হরতাল-অবরোধে তাদের ক্ষতি অনেক বেশি হবে। কারণ বড় দিন শেষ হয়ে বছরের শুরুতে বিদেশ থেকে নতুন নতুন অর্ডার পাওয়া সময় এখন। কিন্তু রাজনৈতিক সমস্যার কারণে ক্রেতারা অর্ডার নেয়ার জন্য আসতে পারছেন না।

রাজনীতির আগুনে ইমেজ সঙ্কটে পোশাক খাত

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) আইনে মোটরসাইকেলে চালকসহ দুই জন আরোহী বহনের অনুমতি থাকলেও সরকার প্রজ্ঞাপন জারি করে অনির্দিষ্টকালের জন্য তা নিষিদ্ধ করেছে। সাম্প্রতিক সময়ে এই দ্বিচক্রযানটি ব্যবহার করে নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড ঘটানোর পরিপ্রেক্ষিতে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। যদিও এ পদক্ষেপ কতোটা কার্যকর হবে তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। তারচেয়ে বড় কথা হলো- এই নিষেধাজ্ঞার ফলে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের কয়েক হাজার খেটে খাওয়া মানুষের পেটে লাথি মারা হলো! বরিশাল, নেত্রকোনাসহ বেশক’টি জেলায় এখন মোটরসাইকেলে যাত্রী বহন একটি বেশ ভালো পেশা হিসেবে দাঁড়িয়ে গেছে। অসংখ্য বেকারের এতে কর্মসংস্থান হয়েছে। কয়েক হাজার পরিবার তাদের উপার্জনের উপর নির্ভরশীল। এই নিষেধাজ্ঞা যদি টানা এক সপ্তাহ বলবত থাকে তাহলে নিঃসন্দেহে তাদের অভুক্ত থাকতে হবে।

কয়েক হাজার মানুষের পেটে লাথি