সোমবার, ৩০ মার্চ ২০১৫ ।

ওষুধ কারখানায় আগুন, শ্রমিকের মৃত্যু

বরিশাল নগরীতে ওষুধ প্রস্তুতকারি প্রতিষ্ঠান অপসোনিন ফার্মার কারখানায় আগুনে পুড়ে নেছার প্যাদা (৪২) নামে এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এসময় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৪ জন। আহতদের উদ্ধার করে বরিশাল শে-র-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তারা হলেন- জাকির হোসেন (৩০), ফারুক হাওলাদার (৪০) , সিদাম নন্দী (২৯) এবং আব্দুর রশিদ (৪৫)। রোববার রাত ২টার দিকে বরিশাল নগরীর পূর্ব বগুড়া রোড এলাকায় অপসোনিন ফার্মা লিমিটেডের কারাখানায় আগুনের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নিহত নেছার প্যাদা ওই প্রতিষ্ঠানের রং মিস্ত্রী ছিলেন। তিনি পটুয়াখালী জেলার গলাচিপা উপজেলার আবুল প্যাদার ছেলে। প্রত্যক্ষদর্শী শ্রমিকরা জানান, কারখানাটির ওষুধ প্রস্তুতকারি একটি রুম থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। তবে কিছু বুঝে ওঠার আগেই ওই আগুন সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে বরিশাল ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের কর্মীদের খবর দেয়া হয়।’ বরিশাল ফায়ার অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. আলাউদ্দিন বাংলামেইলকে জানান, আগুনের খবর পাওয়ার পরপরেই ৩টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়ার চেষ্টা চালায়। কিন্তু আগুনের ব্যাপকতা অনেক বেশি থাকায় তাৎক্ষণিক নিয়ন্ত্রণে নিতে না পারায় পার্শ্ববর্তী বানারীপাড়া, ঝালাকাঠির পৃথক ২টি ইউনিটসহ ৫টি ইউনিট এসে একযোগে কাজ করে।

রংপুরে ৩ চেয়ারম্যানের ঢোলে জয়

রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, পাল্টাপাল্টি অভিযোগ আর বিক্ষিপ্ত সহিংসতার মধ্য দিয়ে রংপুর সদর উপজেলার ৩ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থীরা ঢোল প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। রোববার রাত সোয়া ১১টায় অনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং অফিসার ও সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম এ ফলাফল ঘোষণা করেন। গতকাল রোববার রংপুর সদর উপজেলার হরিদেবপুর, চন্দনপাট ও সদ্যপুষ্করণী ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন দীর্ঘ ১৫ বছর পর অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান পদে হরিদেবপুর ইউনিয়নে ইকবাল হোসেন (ঢোল প্রতীক), চন্দনপাট ইউনিয়নে আমিনুর রহমান (ঢোল প্রতীক) এবং সদ্যপুষ্করণী ইউনিয়নে সোহেল রানা সুজন (ঢোল প্রতীক) নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি জানান, হরিদেবপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ইকবাল হোসেন ঢোল প্রতীক পেয়েছেন ১১ হাজার ৬২ ভোট এবং তার নিকটতম প্রার্থী মফিজুল ইসলাম পেয়েছেন ৩ হাজার ৮৬৩ ভোট। চন্দনপাট ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আমিনুর রহমান ঢোল প্রতীক পেয়েছেন ৮ হাজার ৪৩ ভোট এবং তার নিকটতম প্রার্থী বিপ্লব সরকার পেয়েছেন ৪ হাজার ৩৭৮ ভোট। অপরদিকে, সদ্যপুষ্করণী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে সোহেল রানা ঢোল প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৫ হাজার ৫১২ ভোট এবং

চোরের চিৎকারে গণপিটুনি খেলো ৩ ব্যক্তি!

চোর পেটাতে গিয়ে চোরের বুদ্ধির কাছে আক্কেলগুড়ুম হলেন তিন ব্যক্তি। শুধু কি আক্কেল গুড়ুম? রীতিমতো গণধোলাইয়ের শিকার হয়ে তারা এখন হাসপাতালে ভর্তি আছেন। আর চোর? সেই যে চম্পট দিয়েছে তার কোনো হদিসই পায়নি কেউ। সোমবার সকাল সোয়া ৮টার দিকে এমন ঘটনাই ঘটেছে রাজধানীর শাহবাগ থানাধীন হাইকোর্ট গেটের সামনে। গণধোলাইয়ের শিকার তিন ব্যক্তি হলেন- আব্দুর রাজ্জাক (৪৫), ইমরান হোসেন (১৯) ও আনিসুর রহমান (২৮)। আহত আব্দুর রাজ্জাক হাইকোর্ট এলাকার একজন রিকশা মিস্ত্রি। তিনি জানান, মানিক নামের স্থানীয় এক হোরোইনসেবী তার গ্যারেজ থেকে একটি যন্ত্র চুরি করে পালিয়ে যাওয়ার সময় তাকে পাকড়াও করে রাজ্জাক ও তার দুই সঙ্গী ইমরান ও আনিস। পরে তাকে ধরে দুই এক ঘা দিতেই চোর উল্টো ‘চোর চোর’ বলে চিৎকার করে লোক জড়ো করে। মানিকের এরকম আকস্মিক চিৎকারে হতবুদ্ধি হয়ে পড়েন তিনজন। আশেপাশের জনতা এগিয়ে এসে চোর সন্দেহে গ্যারেজ মালিক রাজ্জাকসহ তিনজনকে গণধোলাই দিতে থাকে। এই ফাঁকে চম্পট দেয় চোর মানিক। জনতা পিটিয়ে গুরুতর আহত করে অনতিদূরে দাঁড়িয়ে থাকা পুলিশের কাছে সোপর্দ করে তিনজনকে। সেখানে দায়িত্বে থাকা শাহবাগ থানার এসআই মোশাররফ গুরুতর আহত অবস্থায় তাদেরকে আটক করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা আসল ঘটনা জানতে পেরে খুঁজতে থাকে চোরকে। কিন্তু চোর কি আর ওই এলাকায় থাকে?
নগরবাসীর দায়িত্ব থেকে রাজনৈতিক নেতাদের সরে যাওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন দেশের অন্যতম শীর্ষ ব্যবসায়ী তাবিথ এম আউয়াল। তিনি মনে করেন, ‘যদি প্রফিটই প্রধান চিন্তা হয় তাহলে এখনই পারফেক্ট সময় ঢাকার দায়িত্ব ব্যবসায়িদেরকে দেয়ার’। আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ঢাকা উত্তরে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি তার বাবা বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুল আউয়াল মিন্টুও একই পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। কিন্তু সেই অর্থে তাকে বাবার প্রতিদ্বন্দ্বী বিবেচনা করলে হয়ত ভুল হবে। কারণ তার কথাবার্তা ও দৃষ্টিভঙ্গিতে তেমন কিছু নেই। হতে পারে বাপ-বেটার মনোনয়নপত্র জমা দেয়া বিএনপিরই একটা কৌশল!
রোববারের সমাবেশে রাজনাথ মহারাষ্ট্রের প্রসঙ্গ টেনে এনে বলেন, ‘ গো হত্যা বন্ধে আমার সরকারের দেয়া প্রতিশ্রুতি নিয়ে সন্দেহ করার কোনো সুযোগ নেই। এর আগে মধ্যপ্রদেশের বিজেপি সরকার এ সংক্রান্ত একটি কঠিন আইন প্রবর্তন করেছে। এখন মহারাষ্ট্র সরকারও গো হত্যা নিষিদ্ধ করতে সক্রিয় হয়েছে। আমরা কালবিলম্ব না করে মহারাষ্ট্র সরকারের পাস করা বিলটি প্রেসিডেন্টের অনুমোদনের জন্য পাঠাতে যাচ্ছি।’ মহারাষ্ট্রে শুধু গরু নয়-মহিষ হত্যাও নিষিদ্ধ করা হচ্ছে।
রাজশাহীর বাঘা উপজেলার চণ্ডীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩০ জন শিক্ষার্থীকে পেটানোর ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে। এ ঘটনায় সেই সহকারী শিক্ষক মোহাম্মদ আলীকে রোববার বিকেলে আদালতে পাঠানো হয়। এ সময় বাঘা-পুঠিয়া ১নং আমলী আদালতে তার জামিনের আবেদন করা হয়। পরে শুনানি শেষে আদালতের বিচারক মাহমুদুল হাসান তার জামিন মঞ্জুর করেন। রাজশাহী জেলা কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক বজলুর রশিদ সন্ধ্যায় এ তথ্য জানান। এর আগে তার বিরুদ্ধে নির্যাতনের শিকার এক শিক্ষার্থীর বাবা আব্দুল খালেক বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। শনিবার রাতেই ওই মামলাটি দায়ের করা হয়। এদিকে, শিক্ষার্থীদের নির্যাতন ও অভিভাবকদের পাল্টা হামলায় প্রধান শিক্ষক আহত হওয়ার বিষয়টি তদন্ত রোববার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন রাজশাহীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) তুহিনুর রহমান, বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বাদল চন্দ্র হালদার, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কাজী আবদুল মোকিম ও বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুর রহমান। বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়েই এডিসি শিক্ষা প্রথমেই সহকারী শিক্ষকদের অফিস কক্ষ পরিদর্শন করেন। ওই কক্ষ থেকে তিনি শিক্ষার্থীদের পেটানোর কাজে ব্যবহৃত ১০টি বেত উদ্ধার করেন। এ সময় সহকারী প্রধান শিক্ষক মমিনুর রহমানের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কোনো উত্তর দিতে পারেননি। এদিকে তদন্তের সময় শিক্ষার্থীর ওপর চাপিয়ে দেয়া শিক্ষকদের নানা অনিয়মের চিত্র প্রকাশ পায়। ওই প্রতিষ্ঠান পরিচালনার জন্য বর্তমানে যে পরিচালনা কমিটি রয়েছে প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলামের নিজ হাতে গড়া। এ সুবাদে তিনি কথায়-কথায় শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে নানাভাবে অর্থ আদায় করে থাকেন।
মেলবোর্নে আজ বিশ্বকাপের পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে নেই আইসিসির সভাপতি! প্রথম থেকেই বিষয়টি খটকা লেগেছিল সবার মনে। যেখানে অস্ট্রেলিয়া দলের হাতে শিরোপা তুলে দেন আইসিসির চেয়ারম্যান ভারতের এন শ্রীনিবাসন। অথচ অস্ট্রেলিয়া দলের হাতে শিরোপা তুলে দেয়ার কথা ছিল আইসিসির সভাপতি আ হ ম মুস্তফা কামালের। আইসিসির গঠনতন্ত্রও তাই বলে। ১৯৯৯ বিশ্বকাপ ফাইনালে লর্ডসে স্টিভ ওয়াহদের হাতে শিরোপা তুলে দিয়েছিলেন ওই সময়ের আইসিসি সভাপতি জগমোহন ডালমিয়া। এরপর এ নিয়মটিই দাঁড়িয়ে গিয়েছিল। কিন্তু এবার ঘটল ভিন্ন ঘটনা।
জমে উঠেছে রাজধানী ঢাকার দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩৫ ও ৪৪ নম্বর ওয়ার্ডের নির্বাচনী প্রচারণা। পোস্টার ফেস্টুন ও ব্যানারে ছেয়ে গেছে এলাকার অলি-গলি। প্রার্থীদের সবাই অনেক আগে থেকেই শুরু করেছেন প্রচারণা। এদের অনেকেই বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পদে রয়েছেন। দলীয় সমর্থনও পেতে চেষ্টা করছেন তারা। আবার কেউ কেউ দলীয় পদ গোপন রেখে নিজেকে প্রার্থী ঘোষণা করছেন।
এই দুর্ঘটনাগুলোর জন্য অনেক বিচ্ছিন্ন ঘটনাকে দায়ি করা হচ্ছে। কোথাও বলা হচ্ছে পাইলট মাতাল ছিল বলে, আবার কোথাও বলা হচ্ছে পাইলট হতাশাগ্রস্ত ছিল বলে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। দেশি-বিদেশি পত্রিকাগুলো একই সুরে সুর মেলাচ্ছেন, যা ওই তদন্তকারী দলগুলো প্রেসক্রিপশন হিসেবে মিডিয়ার সামনে তুলে ধরছে। অথচ কোথাও বলা হচ্ছে না, দুর্ঘটনায় কবলিত বিমানগুলোর বেশিরভাগই বোয়িং বিমান এবং সেগুলো যুক্তরাষ্ট্রে নির্মিত।
দল ম্যাচ জয় পরাজয় ড্র পয়েন্ট
নিউজিল্যান্ড ১২
অস্ট্রেলিয়া
শ্রীলংকা
বাংলাদেশ
ইংল্যান্ড
আফগানিস্তান
স্কটল্যান্ড
দল ম্যাচ জয় পরাজয় ড্র পয়েন্ট
ভারত ১২
দক্ষিণ আফ্রিকা
পাকিস্তান
ওয়েস্ট ইন্ডিজ
আয়ারল্যান্ড
জিম্বাবুয়ে
আরব আমিরাত

‘বাজে আম্পায়ারিং’ স্বীকার করলো আইসিসি!

১৯ মার্চ ক্রিকেটের কালো দিন। বিষয়টা প্রকারান্তরে স্বীকার করে নিচ্ছে আইসিসি! বাংলাদেশের বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে ভারতকে অনৈতিক সুবিধা দিতে বাজে আম্পায়ারিংয়ের বিষয়টা আইসিসি স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে সংস্থাটির প্রেসিডেন্ট আ হ ম মোস্তফা কামাল। মেলবোর্নে অস্ট্রেলিয়ার বনাম নিউজিল্যান্ডের ফাইনালের আগেরদিন আইসিসির একটি অনানুষ্ঠানিক বৈঠকে বিষয়টি উত্থাপন করেন তিনি। সেখানেই বিষয়টি স্বীকার করেছেন আইসিসি চেয়ারম্যান এন শ্রীনিবাসন। রোববার বিশ্বকাপের ফাইনাল শেষে ট্রফি দেওয়া না দেওয়া নিয়ে বাংলাদেশি মিডিয়ার কাছে ক্ষোভ ঝাড়েন আইসিসি প্রেসিডেন্ট।

ফিরমিনোর গোলে ব্রাজিলের জয়

লন্ডনের এমিরেটসে মুখোমুখি লাতিন আমেরিকার দুই দেশ ব্রাজিল এবং চিলি। ম্যাচটি ছিল আলেক্সিজ সানচেজের হোম ভেন্যুতে খেলার মতই। আর্সেনালের তারকাই ফরোয়ার্ড পারলেন না হোম ভেন্যুর সুবিধা কাজে লাগাতে। আবার দুরন্ত ফর্মে থাকা নেইমারও খুঁজে পাননি চিলির জাল। তবে শেষ দিকে এসে সুপার সাব রবার্তো ফিরমিনোর একমাত্র গোলে চিলিকে ১-০ গোলে হারিয়ে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখল ব্রাজিল। এ নিয়ে টানা অষ্টম জয় পেলো কার্লোস দুঙ্গার ব্রাজিল। বিশ্বকাপের হতাশাজনক পারফরম্যান্সের পর দ্বিতীয় মেয়াদে দায়িত্ব নিয়ে এখনও পর্যন্ত সেলেসাওদের জয়ের পথেই রাখলেন ১৯৯৪ বিশ্বকাপজয়ী এই অধিনায়ক। তবে চিলির বিপক্ষে এই ম্যাচে দল নিয়ে বেশ পরীক্ষা-নীরিক্ষা চালিয়েছেন কোচ দুঙ্গা।

চাপ সামলাতে পারেনি নিউজিল্যান্ড

জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক ফাইনাল দেখার অপেক্ষায় ছিলেন। তবে দুই প্রতিবেশীর লড়াইটা যে একেবারেই একপেশে হবে এমনটাও ভাবেননি তারা। যদিও সবাই অস্ট্রেলিয়াকে এগিয়ে রেখেছিলেন, আবার অনেকে নিউজিল্যান্ডেরও জয় কামনা করছেন । ফাইনালের পর বাংলাদেশ দলের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার বলছেন, মেলবোর্নের বড় মাঠ আর বিগ ম্যাচের টেম্পারমেন্ট না থাকার কারণেই হেরেছে নিউজিল্যান্ড। সাব্বির-তাইজুলরা মনে করছেন, এরআগে নিজেদের দেশের ছোট মাঠে ভালো করে ফাইনালে উঠেছিল কিউইরা; কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার বড় মাঠে এসে খেই হারিয়ে ফেলেছে তারা।

‘আয়নাবাজি’তেও আমার চরিত্রটি আলাদা: চঞ্চল

বিজ্ঞাপন, মঞ্চ নাটক, টেলিভিশন নাটক এবং চলচ্চিত্র- সকল ক্ষেত্রেই জনপ্রিয় তিনি। একটি টেলিকম কোম্পানির বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে প্রথম দর্শকপ্রিয়তা পান। মঞ্চেও তিনি একনিষ্ঠ কর্মী, আরণ্যকের নাটক ‘রাঢ়াঙ’ এবং ‘চে’র সাইকেল’ নাটকের নিয়মিত শো করছেন। আর টেলিভিশনে তার ব্যস্ততা খন্ড নাটক এবং ধারাবাহিককে। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিজয়ী এ অভিনেতা অভিনয় করেছেন ‘রূপকথার গল্প’, ‘মনপুরা’, ‘মনের মানুষ’ ও ‘টেলিভিশন’ চলচ্চিত্রে। এবার চুক্তিবদ্ধ হলেন নির্মাতা অমিতাভ রেজার প্রথম চলচ্চিত্র ‘আয়নাবাজি’তে।

কোন ত্বকে কোন মাস্ক বেশি উপযোগী

মুখমণ্ডলের নিয়িমিত চর্চায় সব সময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা জরুরি। বৈরি আবহাওয়ায় ত্বকের ব্রণ, র‌্যাশ, ব্লাকহেডস বা হোয়াইটহেডস যায় বলুন না কেন সবই বিরক্তিকর। তাই অধিকাংশ সুন্দরীদের কাছে ত্বকচর্চায় বিশেষভাবে পরিচিত হয়ে উঠেছে হাতের কাছে পাওয়া উপটান। আরও ভালো ফল পেতে কেউ আবার ফেস মাস্ক ব্যবহার করছেন। তাৎক্ষণিকভাবে টানটান আর পরিষ্কার ত্বক পেতে মাস্কের বিকল্প নেই। অথচ আমরা ঠিকমতো জানি না কোন ফেসিয়াল মাস্ক কোন ত্বকে বেশি উপযোগী। নিজের ত্বকের ধরন বুঝে মাস্ক বেছে নিন। যেকোনো মাস্ক ব্যবহারের আগে ত্বক ভালোভাবে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে। যদি সম্ভব হয়, তবে মাস্কের আগে ত্বকে একটু স্টিম দিয়ে নিতে পারেন।
ভারতে ইলিশ দিয়ে ফেনসিডিল আনার মতো বিনিময় বাণিজ্য প্রচলিত আছে অনেক আগে থেকেই। এখন মায়ানমার থেকে আসা ইয়াবা ট্যাবলেট বাংলাদেশ হয়ে ভারতে যাচ্ছে। বিনিময়ে আসছে অস্ত্র ও ফেনসিডিলের চালান। মাদক চোরাকারবারিরা এখন এভাবেই মাদক ও অস্ত্র ব্যবসা একসঙ্গে করছে। গোয়েন্দাদের তৎপরতায় এই বিনিময় বাণিজ্যের কৌশল ধরা পড়েছে। সম্প্রতি রাজধানীর ডেমরা এলাকা থেকে লক্ষাধিক পিস ইয়াবাসহ সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ী চক্রের দুই সদস্যকে আটক করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এটি রাজধানীতে উদ্ধার হওয়া ইয়াবার সবচেয়ে বড় চালান। এদের চার দিনের রিমান্ডে নিয়ে মাদক পাচারের অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়েছে গোয়েন্দারা। ডিবি পুলিশের একজন কর্মকর্তা বাংলামেইলকে জানান, দীর্ঘদিন ধরে মায়ানমার থেকে টেকনাফ হয়ে অবৈধভাবে ইয়াবা দেশে ঢুকছে। চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতার সুযোগ নিয়ে গত দুই মাসে দেশে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা মায়ানমার থেকে এসেছে।

বিনিমিয় বাণিজ্য: যাচ্ছে ইয়াবা আসছে অস্ত্র

আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচন ঘিরে রাজধানীতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি খারাপ হয়ে উঠতে পারে বলে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে উঠতি সন্ত্রাসীদের ব্যবহার করে ফায়দা নিতে পারে মাঠপর্যায়ের রাজনৈতিক নেতারা। তালিকাভূক্ত সাত শতাধিক উঠতি সন্ত্রাসী এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা রাখতে পারে। এমন শঙ্কা এবং চলমান অস্থিতিশীল পরিস্থিতি বিবেচনা করে অপরাধীদের গ্রেপ্তার করতে ‘ব্লকরেইড’ অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার রাত থেকে ঢাকার আটটি ক্রাইম জোনে কঠোর গোপনীয়তার সঙ্গে এ অভিযান শুরু হয়েছে। এ অভিযানের সন্দেহভাজনদের পাশাপাশি ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্তদের কোনো ব্যক্তি নির্বাচনে প্রার্থী অথবা নির্বাচনী প্রচারণা কাজে অংশ নিলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেবে পুলিশ। ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্তদের মধ্যে মেয়র পদে মনোনয়ন কিনেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ঢাকা মহনগরের আহ্বায়ক মির্জা আব্বাস, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুল আওয়াল মিন্টু, দলের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সালাম। এছাড়া কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র কিনেছেন বিএনপি-জামায়াতের শতাধিক নেতা। যাদের বিরুদ্ধেও রয়েছে ফৌজদারি মামলা।

আব্বাস-মিন্টুদের ঠেকাতে ‘ব্লকরেইড’ অভিযান!

জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) মালয়েশিয়া বিষয়ক সেল সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালে চুক্তি স্বাক্ষরের পর ১০ লাখ লোকের চাহিদাপত্র পাঠিয়ে তা সফলভাবে সম্পন্ন করতে পারলে ক্রমান্বয়ে আরও ৫ লাখ লোক নেয়ার আশ্বাস দেয় মালয়েশিয়ান সরকার। এজন্য ২০১৩ সালে নিবন্ধন করেন ১৪ লাখ ৪২ হাজার ৭৭৬ জন। নিবন্ধনকারীদের মধ্যে প্রাথমিকভাবে ৩৬ হাজার ৩৮ জনকে নির্বাচিত করা হয়। নির্বাচিতদের তিন ভাগে ভাগ করে ২৩ জানুয়ারি প্রথম দফায় পাঠানোর জন্য লটারিতে ১১ হাজার ৭৫৮ জনের যাবতীয় কাগজপত্র তৈরি করা হয়। এরপর আরও দুই ধাপে ২৪ হাজার ২৪০ জনের কাগজপত্র তৈরি করে মালয়েশিয়া পাঠায় বিএমইটি। প্রথম দফায় কাগজপত্র পাঠানো লোকদের মধ্যে ওই বছরের এপ্রিলে ১৯৮ জন শ্রমিককে মালয়েশিয়া পাঠানোর মাধ্যমে শুরু হয় দেশটিতে জনশক্তি রপ্তানি। এরপরই শুরু হয় ধীরে চলো নীতি। বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে চাপ দিলে দুই বছরে মাত্র সাড়ে ৭ হাজার ভিসা দেয় তারা। তবে ২০১৩ সালের এপ্রিলে পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু হলেও ২০১৫ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত সর্বমোট ৭ হাজার ১৬৬ জন কর্মী নিয়েছে তারা।

ঝুলে গেল ১৪ লাখ মানুষের ভাগ্য

আসন্ন ঢাকার বিভিক্ত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নিজ দলীয় মেয়র ও কাউন্সিলার প্রার্থীদের বিজয়ী করতে মরিয়া আওয়ামী লীগ। এমনকি এলক্ষ্য অর্জনে আচরণবিধির তোয়াক্কা করবেন না তারা। ইতিমধ্যে কেন্দ্র থেকে ১৫ টিম গঠন করা হয়েছে। দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের নেতা ও এলাকাভিত্তিক জাতীয় সংসদ সদস্যদের সমন্বয়ে টিমগুলো গঠন করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছেন সরকারের বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রীও। দলীয় সূত্রে এমনটাই জানা গেছে। নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী,জাতীয় সংসদ বা স্থানীয় সরকার নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রচারণায় এমপি-মন্ত্রীসহ কোনো ‘গুরুত্বপূর্ণ’ ব্যক্তি অংশ নিতে পারেন না। এমনকি নির্বাচনের আগে প্রার্থীদের কোনো অনুষ্ঠানেও তাদেরকে আমন্ত্রণ জানানো যাবে না। আচরণবিধি অনুযায়ী, গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি বলতে- প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, মন্ত্রী, চিফ হুইপ, ডেপুটি স্পিকার, বিরোধীদলীয় নেতা, সংসদ উপনেতা, বিরোধীদলীয় উপনেতা, প্রতিমন্ত্রী, হুইপ, উপমন্ত্রী বা তাদের সমমর্যাদার ব্যক্তি, সংসদ সদস্য ও সিটি করপোরেশনের মেয়রকে বোঝানো হয়েছে।

ডিসিসি দখলে মাঠে নামছেন মন্ত্রীরা