বৃহস্পতিবার, ৩০ অক্টোবর ২০১৪ ।

এমপি বদি কারামুক্ত

কক্সবাজার- ৪ আসনের ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদি জামিনে কারামুক্ত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে গাজীপুরের কাশিমপুরের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার-১ থেকে তিনি মুক্তি পান। কাশিমপুরে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এর জেলার মো. আমজান হোসেন ডন বাংলামেইলকে জানান, অবৈধ সম্পদ অর্জন ও সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় গ্রেপ্তার হন। ১৫ দিন আগে তাকে ঢাকা থেকে কাশিমপুরে স্থানান্তর করা হয়। জেলার আরো বলেন, উচ্চ আদালত থেকে পাওয়া জামিনের কাগজপত্র বৃহস্পতিবার দুপুরে এ কারাগারে পৌঁছে। পরে যাচাই বাছাই শেষে বিকেল ৪টার দিকে তাকে মুক্তি দেয়া হয়।

ফারুকী হত্যামামলার বাদীর ওপর হামলা

টিভিতে ইসলামি অনুষ্ঠানের উপস্থাপক শাইখ নূরুল ইসলাম ফারুকী হত্যা মামলার বাদী ইমরান হোসেন তুষারকে (২২) লাঠি দিয়ে পিটিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর শাজাহানপুর রেলওয়ে কলোনী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তুষার ইসলামী ছাত্রসেনার ঢাকা মহানগর সাধারণ সম্পাদক। ছাত্রসেনার মহানগর সভাপতি মাসুদ হোসেন জানান, সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে শাজাহানপুর রেলওয়ে কলোনী এলাকার পথ ধরে হাঁটছিলেন তুষার। এসময় ৮/৯ জন যুবক এসে তাকে জিজ্ঞাসা করে, ‘তুমি তুষার নাকি?’ তিনি ‘হ্যাঁ’ জবাব দিলে তার বাসার ঠিকানা জানতে চায় তারা। কিন্তু তা বলতে রাজি হননি। এক পর্যায়ে তারা বাঁশের লাঠি দিয়ে তাকে মারধর শুরু করে। চিৎকার শুনে পার্শ্ববর্তী এলাকার লোকজন ছুটে এলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে তাকে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়।

সেই ৩ বাংলাদেশির মৃতদেহ হস্তান্তর

ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে চুনারোঘাটের টেকেরঘাট সীমান্তে ভারতীয় গণপিটুনিতে নিহত তিন বাংলাদেশির মৃতদেহ হস্তান্তর করেছে বিএসএফ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় মৃতদেহ বিজিবির কাছে হন্তান্তর করা হয়। পরে বিজিবি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিজিবি ৪৬ ব্যাটালিয়ন কমান্ডিং অফিসার লেফটেন্যান্ট কর্নেল নাসির উদ্দিন।
বেশ কিছুদিন আগেই ঘোষণা দিয়েছিল সুইডেন। এবার আনুষ্ঠানিকভাবে ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দিল ইউরোপের দেশটি। বৃহস্পতিবারের এই ঘোষণা শোনার পর ফিলিস্তিনের মানুষ উল্লাসে ফেটে পড়েছে। অপরদিকে এর প্রতিবাদে ইসরায়েল তেলআবিবে সুইডিশ রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে। তারা অসন্তোষের কথা স্পষ্ট করে জানিয়েছে। সুইডেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রী মারগোট ওয়ালস্ট্রোম এক ‍বিবৃতিতে বলেন, রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার এই পদক্ষেপ ফিলিস্তিনের আত্মনিয়ন্ত্রণের অধিকারকে নিশ্চিত করবে। তিনি বলেন, ‘আমরা আশা করি, এই উদ্যোগ অন্যদেরও পথ দেখাবে।’ ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস এই সিদ্ধান্তকে ‘সাহসী ও ঐতিহাসিক’ বলে অভিহিত করেছেন। ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সদস্যভুক্ত রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে পশ্চিম ইউরোপের দেশ সুইডেনই প্রথম ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দিল। তবে পূর্ব ইউরোপ এবং ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের নয়টি ইইউ সদস্যভুক্ত দেশ- বুলগেরিয়া, সাইপ্রাস, চেক প্রজাতন্ত্র, হাঙ্গেরি, মালটা, পোলান্ড এবং রোমানিয়া ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দিয়েছে।
জামায়াতকে বাদ দিয়ে বিএনপি কখনোই ক্ষমতায় যেতে পারবে না বলে চ্যালেঞ্জ করেছেন গোলাম আযমের ছোট ছেলে আব্দুল্লাহিল আমান আযমী। একই সঙ্গে তার বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর প্রতিষ্ঠাতা আমিরের মৃত্যুতে নীরব থাকায় বিএনপিকে অকৃতজ্ঞও বলেছেন তিনি। আযমী এমন মন্তব্য করেছেন তার ফেসবুক পাতায় গতকাল প্রকাশিত এক স্ট্যাটাসে। ‘তারেক’র নির্দেশে আযমের জানাজা বর্জন করল বিএনপি’ শিরোনামের একটি খবরের লিংক দিয়ে তিনি বলেছেন, ‘কেউ কি আমাকে এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করতে পারবেন?’ এরপর আমান আযমী বলেছেন-
উপজেলার সার্বিক উন্নয়নে সমন্বয়হীনতাকেই দায়ী করেছেন সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী আকন্দ। স্থানীয় সংসদ সদস্য, উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা পরিষদের মাঝে সমন্বয় থাকলে উন্নয়নের গতি কেউ থামাতে পারবে না বলে মনে করেন তিনি। তিনি বলেন, ‘সমন্বয়হীনতার কারণেই বেলকুচি উপজেলার উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।’ বৃহস্পতিবার বেলকুচিতে বাংলামেইলের সঙ্গে একান্ত আলাপে এ কথা বলেন তিনি। মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘উপজেলা চেয়ারম্যান দায়িত্ব পেলেও ক্ষমতা পায়নি। স্থানীয় সংসদ সদস্য আর ইউনিয়ন পরিষদই উন্নয়নের জন্য কাজ করতে পারছে। উপজেলা চেয়ারম্যান এক্ষেত্রে কিছুই করতে পারছে না। কিন্তু সাধারণ মানুষের আমরা কমিটেড। মানুষ বুঝতে পারছে না আমাদের হাতে যে কোনো ক্ষমতা নেই।’
রাঙামাটির রাজবন বিহারে শুরু হয়েছে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব কঠিন চীবর দান উৎসব। বৃহস্পতিবার বিকেলে বেইনঘর ও চরকায় সুতা কেটে উৎসব উদ্বোধন করেন চাকমা রাজা ব্যারিস্টার দেবাশীষ রায় ও তার নতুন রানী ইয়ান ইয়ান। বিকেলে শুরু হওয়া দুই দিনের এ উৎসবকে ঘিরে পুরো রাঙামাটি শহরে চলছে উৎসবের আমেজ। এ উৎসব উদযাপনের জন্য রাঙামাটি পার্বত্য জেলা রয়েছে হরতালমুক্ত। ইতোমধ্যে দেশ-বিদেশ থেকে আগত প্রচুর লোকের সমাগম হয়েছে। এ উৎসবকে ঘিরে বিহার প্রঙ্গণে বসেছে বিশাল গ্রাম্য মেলা। প্রতিবছর কঠিন চীবর দান উৎসবে অংশ নিতে দেশ বিদেশ থেকে লক্ষাধিক লোকের সমাগম হয়ে থাকে পার্বত্য এ জেলায়। শুধু তিন পার্বত্য জেলাই নয়, সারাদেশের মধ্যে সবচেয়ে বড় এ উৎসব হয় রাঙামাটির রাজ বনবিহারে। আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান রাঙামাটি রাজবন বিহারের দানোত্তম কঠিন চীবর দান উৎসবের জন্য বিকেলে বেইনঘর ও চরকায় সুতা কাটা উদ্বোধন করেন চাকমা রাজা ও রানী। মৃগার মাতা বিশাখা প্রবর্তিত নিয়মে করা হয় দান উৎসর্গ। বিহারের ভিক্ষুরা তিন মাস ব্যাপী বর্ষাবাস শেষ করার পর এ উৎসব উদযাপন করা হয়। উৎসবের অন্যতম আর্কষণ হচ্ছে, বিশাখা প্রবর্তিত নিয়মে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জুম চাষের তুলা থেকে চরকায় সুতা কেটে রঙ করে তা শুকিয়ে কোমর তাঁতের মাধ্যমে গেরুয়া রঙয়ের চীবর (কাপড়) তৈরি করা। এ কাপড় ভিক্ষুদের পুণ্যের উদ্দেশ্যে উৎসর্গ করা হয়।
ক’দিনবাদে খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে শুরু হচ্ছে টেস্ট উৎসব। ওই অঞ্চলের মানুষদের মাঝে নিশ্চয় অন্যরকম আনন্দই বইছে। খুলনার সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে পারতো গোটা উত্তরাঞ্চলের ক্রিকেটপ্রেমীরাও। কিন্তু কি কারণে বারবার উপেক্ষিত থেকে যাচ্ছে বগুড়ার শহীদ চাঁন্দু স্টেডিয়াম, এ প্রশ্নের সুদত্তর দিতে পারেন না কেউই। বিশ্ব ক্রিকেটের মানচিত্রে বগুড়ার যাত্রা শুরু হয়েছিল ২০০৬ সালে। আর উৎসবের শহর বগুড়ায় সেবার আনন্দটা দ্বিগুন হয়েছিল যখন হাবিবুল বাশারের বাংলাদেশ প্রথমবার শ্রীলংকাকে পরাজয়ের স্বাদ উপহার দিয়েছিল। যদিও প্রথম ওয়ানডেটি হেরেছিল বাংলাদেশ।
সারাদেশ ৭২টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির (পবিস) কার্যক্রম ঝিমিয়ে পড়েছে। ফলে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে ১৭ হাজার ৮৯২ কোটি টাকা ব্যয়ের ১৮টি প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ। এতে সরকারের বিদ্যুৎ সেক্টরের ২০২১ ভিশন অর্জনও বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। বিদ্যুৎ বিভাগ গত ৮ মাসে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন ( বাপবি ) বোর্ডের সদস্য ( সমিতি ব্যবস্থাপনা) শূণ্য পদ পূরণ করতে না পারায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া প্রশাসনিক কাজে স্থবিরতা, দালালচক্রের উত্থান ও গ্রাহক হয়রানি চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে।

মুশফিকরা এখন খুলনায়

বৃহস্পতিবার রাত আটটা ৫০ মিনিট। খুলনায় পা রাখল বাংলাদেশ এবং জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচে প্রতিদ্বন্ধীতা করতেই খুলনায় পা রাখল মুশফিকুর রহিম এবং ব্রেন্ডন টেলররা। বাংলাদেশ এবং জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটারদের স্বাগত জানাতে আগেই নতুন সাজে সেজেছে বাঘের নগরী খুলনা। টেস্ট ভেন্যু শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামও পুরো প্রস্তুত। এখন শুধু বল মাঠে গড়ানোর অপেক্ষা। মুশফিক বাহিনী এবং সফরকারীদের জন্য নতুন করে সাজানো হয়েছে আবাসিক হোটেল সিটি-ইনকেও। প্রস্তুত করা হয়েছে হোটেলের ৭০টি কক্ষ। ৩ নভেম্বর সোমবার থেকে শুরু হবে সাদা পোষাকে ব্যাট-বলের জমজমাট লড়াই।

বাংলাদেশে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে রিয়াল!

বন্দরনগরী চট্টগ্রামের ৩০ জন কোচ এবং ২৮০ খুদে ফুটবলারকে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে বিশ্বখ্যাত স্প্যানিশ ফুটবল ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ। বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে তিনদিনব্যাপী এ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এর আগে সকালে চট্টগ্রামের জিইসি মোড়স্থ হোটের পেনিনসুলায় এক সংবাদ সম্মেলনে প্রশিক্ষণের বিস্তারিত বিষয় তুলে ধরেন বাংলাদেশে আগত রিয়াল মাদ্রিদ ফুটবল ক্লাবের কোচ পাবলো গোমেজ।

ভিডিও গেম খেলছেন মেসিরা

তাহলে কী মাঠের খেলা ছেড়ে ভার্চুয়াল জগতেই এবার খেলবে স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা! এক এল ক্ল্যাসিকো হেরে বুট তুলে রাখছে শো-কেসে! ভিডিও গেম খেলেই সময় কাটিয়ে দেবে লিওনেল মেসিরা! আক্ষরিক অর্থে এমন না হলেও, সত্যি সত্যি ভিডিও গেম খেলেছেন বার্সেলোনার ফুটবলাররা। মৌসুমের শুরুর আট ম্যাচে কোন গোলই হজম করতে হয়নি। অথচ এল ক্ল্যাসিকোয় চির প্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের কাছে ৩-১ গোলে হারতে হয়েছে বার্সেলোনাকে। স্বভাবতই হতাশ মেসি-নেইমাররা। সেই হতাশা কাটিয়ে ছন্দে ফিরতেই নাকি ভিডিও গেম খেলায় মনযোগ দিয়েছেন মেসিরা।

চলচ্চিত্রে তানভীরের ছুটে চলা

গেল বছরের মার্চে ‘মায়ানগর’ ছবির মাধ্যমে বড়পর্দায় অভিষেক ঘটে মডেল ও অভিনেতা তানভীরের। বেশকিছু দিন টানা শুটিংয়ের পর হঠাৎ করেই ছবিটির কাজ বন্ধ হয়ে যায়। তাই বলে থেমে যাননি ঢাকাই ছবির নাবাগত এই নায়ক।

দুধ পানে নারীর মৃত্যুঝুঁকি বাড়ে!

শরীর ও মস্তিষ্ক সুস্থ রাখতে দরকার দুধের মতো আদর্শ খাবার। বেশি দুধ পান করলে হাড় শক্ত হয়, কমে হৃদরোগের আশঙ্কা। এমনটিই জানা সবার। কিন্তু গবেষকরা দাবি করেছেন, এই ধারণার পেছনে এখনও পর্যন্ত কোনো বৈজ্ঞানিক প্রমাণ পাওয়া যায়নি। সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, যে নারী দিনে তিন গ্লাস বা তার বেশি দুধ পান করেন, তার স্বাস্থ্যঝুঁকি বেড়ে যায়। সেইসঙ্গে বাড়ে মৃত্যুঝুঁকি।
সারাদেশ ৭২টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির (পবিস) কার্যক্রম ঝিমিয়ে পড়েছে। ফলে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে ১৭ হাজার ৮৯২ কোটি টাকা ব্যয়ের ১৮টি প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ। এতে সরকারের বিদ্যুৎ সেক্টরের ২০২১ ভিশন অর্জনও বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। বিদ্যুৎ বিভাগ গত ৮ মাসে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন ( বাপবি ) বোর্ডের সদস্য ( সমিতি ব্যবস্থাপনা) শূণ্য পদ পূরণ করতে না পারায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া প্রশাসনিক কাজে স্থবিরতা, দালালচক্রের উত্থান ও গ্রাহক হয়রানি চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে।

কী হচ্ছে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিতে?

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চট্টগ্রাম সিটি গেট থেকে কুমিরা বাইপাস, পঞ্চশিলা বাজার থেকে কুমিরা বাইপাস প্যাকেজের ফুলতলা ও বারআউলিয়াসহ অন্যান্য অংশের রাস্তা, বাতিশা থেকে মহিপাল পর্যন্ত প্রায় ২০ কিলোমিটার, কুমিল্লা বাইপাস থেকে কুমিরা বাইপাস অংশের ২১ কিলোমিটার, কুটুম্বপুর থেকে কুমিল্লা বাইপাসের ময়নামতি ও নিমসার বাজার অংশে কোনো কার্যক্রম দেখা যায়নি।

ঢাকা-চট্টগ্রাম সড়কের কাজে অসন্তুষ্ট কমিটি

সম্প্রতি মন্ত্রিপরিষদ থেকে অব্যাহতিপ্রাপ্ত এবং দল থেকে বহিষ্কৃত আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীর সংসদ সদস্য পদ আইনি জটিলতা তৈরি হয়েছে। দলের সদস্যপদ হারানোর পর তার সংসদ সদস্য পদ থাকছে কি না সে ব্যাপারে সংবিধান এবং গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে (আরপিও) স্পষ্ট করে কিছু বলা নেই। ফলে আইনের ফাঁকে পার পেয়েও যেতে পারেন তিনি। গত শুক্রবার রাতে গণভবনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় লতিফের প্রাথমিক সদস্য পদ বাতিল করা হয়। বৈঠক শেষে দলটির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, ‘লতিফ সিদ্দিকীর প্রাথমিক সদস্যপদ বাতিল করা হয়েছে, এ সংক্রান্ত কাগজপত্র নির্বাচন কমিশনে পাঠানো হবে। আমরা তার এমপি পদ থেকে বহিষ্কারের জন্যও নির্বাচন কমিশনে লিখিত আবেদন জানাবো।

লতিফের এমপি পদ নিয়ে জটিলতা

বাংলাদেশে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠনগুলো একত্রিত হয়ে ‘বাংলাদেশ জিহাদি গ্রুপ’ নামে নতুন একটি সংগঠন তৈরি করেছে। ইতিমধ্যে তারা সংগঠনের লোগো ও গঠনতন্ত্রসহ অনেক কাজই গুছিয়ে এনেছে। হিজবুত তাহরির ছাড়া নিষিদ্ধ প্রায় সব সংগঠনই আছে এ গ্রুপে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সূত্র জানায়, গত সেপ্টেম্বরে রাজধানীর বাসাবোতে এ বিষয়ে বৈঠকে বসেন নিষিদ্ধ সংগঠনগুলোর বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা। সেখানে চূড়ান্ত করা হয় কোন কোন জেলায় তারা প্রাথমিকভাবে কাজ শুরু করবেন, গঠনতন্ত্র কেমন হবে, কীভাবে নেতা নির্বাচন করা হবে। দেশের বিভিন্ন জেলায় নিষ্ক্রিয় নেতাকর্মীদের ফের সক্রিয় করারও সিদ্ধান্ত হয় বৈঠকে।

জঙ্গিদের সমন্বিত রূপ ‘বাংলাদেশ জিহাদি গ্রুপ’