মঙ্গলবার, ২৭ জানুয়ারি ২০১৫ ।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে কুমিল্লায় মামলা

২০ দলীয় জোট নেত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে কুমিল্লায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। সোমবার রাতে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়। মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসনসহ আসামি করা হয়েছে ৩২ জনকে। কাভার্ড ভ্যান পোড়ানোর অভিযোগে দায়ের করা মামলায় বেগম জিয়াকে হুকুমের আসামি করা হয়েছে। এর আগে ২৩ জানুয়ারি রাতে রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে যাত্রীবাহী বাসে পেট্রোলবোমা ছুঁড়ে আগুন দেয়ার ঘটনায় বিএনপি চেয়ারপারসনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। ২৪ জানুয়ারি বেগম খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি করে ওই মামলা দায়ের করেছেন যাত্রাবাড়ি থানার উপ পরিদর্শক কে এম নুরুজ্জামান।

মেট্রোরেল বিল পাস

মাত্র ৩৮ মিনিটে উত্তরা থেকে বাংলাদেশ ব্যাংক পর্যন্ত ৬০ হাজার যাত্রী নিয়ে যাতায়াতের সক্ষমতা সম্পন্ন ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট প্রজেক্ট বাস্তবায়নের জন্য বহুল আলোচিত মেট্রো রেল বিল পাস হয়েছে। বিলে মেট্রোরেল পরিচালনার ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টিকারীদের সর্বনিম্ন এক বছর থেকে অনধিক ১০ বছর কারাদণ্ড এবং সর্বনিম্ন ৫ লাখ থেকে ১ কোটি টাকার অর্থদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। সোমবার জাতীয় সংসদে বিলটি কণ্ঠভোটে পাস হয়। এর আগে বিলটি যাচাই বাছাই কমিটিতে প্রেরণ ও সংশোধনী প্রস্তাবগুলো কণ্ঠ ভোটে নাকচ হয়ে যায়। চলতি সংসদের চতুর্থ অধিবেশনের সমাপনী দিবসে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিলটি সংসদে উত্থাপন করেন। এরপর বিলটি চার সপ্তাহের মধ্যে যাচাই-বাচাই করে রিপোর্ট প্রদানের জন্য সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।

র‌্যাব-পুলিশের অস্ত্র যেন আ.লীগের টাকায় কেনা

সরকারি কর্মচারীদের বক্তব্যে রাষ্ট্রের নিপীড়ক চরিত্র সুস্পষ্টভাবে প্রকাশিত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। তিনি বলেছেন, ‘বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রটি যে এখন বর্বর, নিপীড়ক, দমন-পীড়ন, হত্যা, গুম, খুন ও যৌথ বাহিনীর নিষ্ঠুর অপারেশনের প্রতিষ্ঠান তা আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কর্মকর্তারা যথার্থভাবেই সকলকে টের পাওয়াচ্ছেন। একেকদিন একেকজন কর্মকর্তার বক্তব্য শুনলে মনে হয় আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অস্ত্র যেন আওয়ামী লীগের তহবিল থেকে কেনা। সুতরাং এই অস্ত্র ব্যবহারে কোনো জবাবদিহিতার দরকার নেই বলে তারা মনে করে। কারণ আওয়ামী লীগপন্থি আইন প্রয়োগকারী সংস্থার প্রধানরা ছাড়পত্র দিয়েছেন তাদের জোয়ানদের।’ র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজির আহমেদের উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, ‘অস্ত্র গোলাবারুদ কেনো অকেজো করে রাখা হয়েছে। এ ব্যাপারে উষ্মা প্রকাশ করেছেন র‌্যাবের ডিজি। কেন অস্ত্রশস্ত্র খেলার উপকরণ হিসেবে ফেলে রাখা হয়েছে। কেন যথাযথ ব্যবহার করা হচ্ছে না। র‌্যাবের মহাপরিচালক আরো বলেছেন বিচার বহির্ভুত হত্যা বলে নাকি কিছু নাই।’
নতুন প্রজন্মের ৯টি ব্যাংকের একটি সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স ব্যাংক লিমিটেড। ২০১৩ সালে ১২টি শাখা নিয়ে যাত্রা শুরু করে ব্যাংকটি। বর্তমানে শাখার সংখ্যা ৩৪টি। ২০১৫ সালের মধ্যে মধ্যে ৫০টি শাখা খোলার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে কর্তৃপক্ষ। অন্যান্য লক্ষ্যমাত্রা ও কার্যক্রম, দেশের ব্যাংকিং সেক্টরের অবস্থা, নতুন ব্যাংকগুলোর অবস্থা, প্রতিযোগিতামূল বাজার, রাজনৈতিক অস্থিরতায় ব্যবসাবাণিজ্যের পরিস্থিতি নিয়ে বাংলামেইলের সঙ্গে কথা বলেছেন ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম। তার সাক্ষাৎকার নিয়েছেন বাংলামেইলের স্টাফ করেসপন্ডেন্ট শওকত আলী পলাশ। সাক্ষাৎকারের মূল আলোচনাটুকু পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।
সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক আদর্শ জনপদ হিসেবে বাংলাদেশের সুনাম ছিল সম্পূর্ণ আলাদা। দিন দিন এ সুনাম থেকে সরে যাচ্ছে বাংলাদেশ। সাম্প্রদায়িক চেতনা যতোই বৃদ্ধি পাচ্ছে দেশে সংখ্যালঘু সম্প্রদায় ততোই আক্রান্ত হচ্ছে তার প্রতিবেশী, পরিচিত বা প্রতিদ্বন্দ্বী কোনো পক্ষের দ্বারা। প্রতিদিন গণমাধ্যমে কোনো না কোনো এলাকার সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর হামলার খবর প্রকাশিত হচ্ছে। এই সঙ্কটের সৃষ্টি হয় ১৯৪৭ সালে ঘৃণ্য সাম্প্রদায়িকতার ভিত্তিতে দেশ ভাগের মধ্য দিয়ে। কলকাতায় দাঙ্গা লুটপাট শুরু হয়। সরকারি হিসাবে এই হত্যার পরিমান ছিল ১০ লাখ। বেসরকারিভাবে পরিমান হয়তো আরো বেশী। ১৯৪৭ সালে দেশভাগ হলো বিনয়,বাদল, দিনেশ, ক্ষুদিরাম, সূর্য সেনদের রক্তের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করে। ব্রিটিশ দেশত্যাগের আগে মোহন লাল করমচাঁদ গান্ধী, জওহর লাল নেহেরু আর জিন্নাহ সাহেবকে নিয়ে মাউন্টব্যাটেন সাহেব যে বিষবৃক্ষ রোপন করলেন তার ক্ষত আজও বহন করতে হচ্ছে।
সাবধানতা অবলম্বন করুন প্রতিটি ক্ষেত্রে। সতর্ক না হলেই পা পিছলে সোজা চলে যাবেন পেছনের ফেলে আসা ঘটনা প্রবাহের কাছে। আর যেহেতু অতীত নিয়ে আপনার অ্যালার্জি আছে তাই অতীত থেকে দূরে থাকাই ভালো। গুরুত্বপূর্ণ কাজ তো ভুল হবেই, সচারচর যা করছেন সেটাও ভুল হয়ে হাস্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে। যে বিষয়টির কোনো প্রয়োজন নেই সেটা করতেই যদি আপনার এত আগ্রহ তো করতেই থাকুন। তবে সন্ধ্যে বেলা বাসায় মিষ্টি কিনে নিতে ভুলবেন না।
রংপুরের কোতোয়ালি থানার ইফাত বিন মাহবুব হত্যা মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত তিন আসামিকে খালাস দিয়েছেন সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ। গত সোমবার (১৯ জানুয়ারি) প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের একটি বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আসামিরা হলেন- খন্দকার মাহবুব এলাহি বিপ্লব, ক্যাপ্টেন (অব.) ইফতেখার এলাহি শান্ত ও পাভেল। পারিবারিক কলহের কারণে ২০০৬ সালের ১৬ মে রংপুরের কোতোয়ালি থানার বাসিন্দা লন্ডন প্রবাসী ইফাত বিন মাহবুবকে এই তিন আসামি হত্যা করেন বলে অভিযোগ রয়েছে। ঘটনার দিনই কোতোয়ালি থানার তাদের আসামি করে মাহবুবের ভাই আদিম বিন মাহবুব একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে এ মামলাটি দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনাল রাজশাহীতে পরিবর্তন করা হয়। ২০০৭ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি আসামিদের ফাঁসির আদেশ দেন দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল- রাজশাহী।
চলামান হরতাল অবরোধে চুলা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় থালা হাতে রাস্তায় নেমে এলেন যশোরের পরিবহন শ্রমিকরা। তারা মানববন্ধনসহ থালা হাতে অবস্থান কর্মসূচি করে। সোমবার বিকেলে যশোর শহরের মণিহার চত্বরে এ কর্মসূচি পালন করে শ্রমিক ও ব্যবসায়ীরা। কর্মসূচিতে তারা গাড়ি ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ, বোমা এবং পেট্রোলবোমা হামলা চালিয়ে মানুষের জানমালের ক্ষতিসাধন করায় জড়িত নাশকতাকারীদের আটক এবং তাদের বিচার দাবি করে। এসময় কর্মসূচিতে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন- জেলা সনাতন ধর্ম সংঘের সভাপতি শ্রীভূষণ ঘোষ, পরিবহন সংস্থা শ্রমিক সমিতির সভাপতি আজিজুল আলম মিন্টু, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সন্তোষ দত্ত, পরিবহন শ্রমিকলীগের সভাপতি গোলাম মোস্তফা, হিউম্যান হলার মালিক সমিতির সভাপতি মনিরুজ্জামান মনির, ফল ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মনিরুজ্জামান মনি, পুরাতন বাস টার্মিনাল ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি খায়রুজ্জামান পলাশ, পরিবহন সংস্থা শ্রমিক সমিতির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক সেলিম রেজা মিঠু, ব্যবসায়ী নেতা মুজিবর রহমান, নাসির উদ্দিন, শান্তি-শৃঙ্খলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন টগর প্রমুখ। কর্মসূচি পরিচালনা করেন- শ্রমিকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ হারুনার রশিদ ফুলু।
রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার বাসিন্দা শুকচাঁদ। পেটের টানে কয়েক বছর আগে রাজশাহী মহানগরীতে এসে রিকশা টানতে শুরু করেছেন। টানা দুই সপ্তার বেশি সময় ধরে অবরোধ ও হরতালের মুখোমুখি পড়ে একেবারে নাজেহাল তার অবস্থা। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ‘আমাগের কথা এ্যাকটু ভাবিন বাপুরে, আর যে পারিচ্ছি না। দিন যাচ্ছে আর হাত খালি হয়ে আসিচ্ছে। পকোটে জমানো পাইসা ফুরাচ্ছে। কামও পাচ্চি নে। এলা আর ভাললাগে না রে বাপু।’ নিজের অবস্থার কথা জানাতে তিনি আরো বলেন, ‘সকালে একশা (রিকশা) লিয়ে আস্তায় নামিছিরে বাপু। দুপ্পর পার হলেও পকোটে টাকা আইছে তিন কুড়ি (৬০ টাকা)। বাড়িত ৩ ছাওয়াল ও বৌ আচে। তাগের কি পেটোত দিমু রে বাপু ভ্যাবা পাত্তি না।’ এতো গেলো অসহায় রিকশাচালকের নিজের কথা। অবরোধ আর হরতালে অসহায় হয়ে পড়েছে ক্ষুদ ব্যবসায়ীরাও। নগরীর মোড়ে মোড়ে পান-সিগারেটের দোকানদার পর্যন্ত চোখে সরিষার ফুল দেখতে শুরু করেছেন। নগরীর জাদুঘর মোড় এলাকার পান ও সিগারেটের দোকানি জামাল মিয়া। তার বাড়ি নগরীর রাজপাড়া থানার চণ্ডিপুর এলাকায়। ব্যবসা কেমন চলছে এমন প্রশ্ন করতেই কিছুটা রেগে উঠলেন তিনি। খুব দ্রুত নিজেকে সামলে নিয়ে পান বানাতে বানাতে বললেন, ‘বুঝলেন মামা, নেতা মানুষের কাছে আমরা হলাম কোতিকার (কোথায় কার) মফিজ। কিভাবে দিন যায় তাতে তাগের যায়-অ্যাসছে না। তাগের তো গদি দরক্যার।’ নিজে কেমন আছেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘নিজের কথা আর কি বুলবো। সাত স্যাকালে পানের দোকান নিয়ে বসাছি। বিক্রি যা হয়াছে তাতে লাভের মুখ দেখিনি কো। যাই বুলেন মামা, আর ভ্যাললাগছে না বুঝলেন। কবে যে এগুলা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে বুঝলেন।’

হিরো থেকে ভিলেন

রুপালির পর্দার হিরোদের মতোই ইনজামাম-উল-হকের বিশ্বকাপ ক্রিকেট ক্যারিয়ার। অভিষেক বিশ্বকাপে মাত্র ২২ বছর বয়সেই হিরো বনে যান নাদুসনদুস ছেলেটি। ১৯৯২ বিশ্বকাপে যে ইমরান খান পাকিস্তানকে চ্যাম্পিয়ন করিয়েছিলেন সেখানে তরুণ ইনজির অবদানও কম নয়। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেমিফাইনালে তার ৪৮ বলে ৬৮ রানের ইনিংসই পাকিস্তানকে ফাইনালের টিকিট পাইয়ে দিয়েছিল। ফাইনালেও ৪২ রানের এক ঝকঝকে ইনিংস খেলেছিলেন ইনজামাম। গোটা ক্রিকেট দুনিয়া তখন বুঝে গিয়েছিল এই ছেলেটি ক্রিকেটে থাকতেই এসেছে। হ্যাঁ, মুলতানের সুলতান দীর্ঘদিনই পাকিস্তানের ঝান্ডা বয়ে বেড়িয়েছেন। খেলেছেন আরও চার-চারটি বিশ্বকাপ। কিন্তু ৯২-এর ইনজামামকে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি।

ব্রিসবেনের হোটেলে মাশরাফিরা

অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপে অংশ নিতে গতকালই অস্ট্রেলিয়ায় পৌঁছেছেন মাশরাফিরা। ব্রিসবেনে একটি হোটেলে উঠেছে টিম বাংলাদেশ। এক দিনের বিশ্রাম শেষে মঙ্গলবার সকাল থেকেই অস্ট্রেলিয়ার কন্ডিশনে অনুশীলন শুরু করবে ক্রিকেটাররা। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমাম বাংলামেইলকে বিষয়টা নিশ্চিত করেছেন। আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫-এ অংশ নিতে গত শনিবার রাতে অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে বিমানে ওঠে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। প্রায় ১৪ ঘণ্টা বিমানে থাকার পর বাংলাদেশ সময় রোববার রাত দেড়টায় অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনে গিয়ে পৌঁছায় তারা। সোমবার বিশ্রাম শেষে মঙ্গলবার থেকেই অস্ট্রেলিয়ার একটি একাডেমিতে অনুশীলন শুরু করতে যাচ্ছে টিম বাংলাদেশ।

রনির দ্বিশতকে ঢাকার রানের পাহাড়

১৬তম ওয়ালটন জাতীয় ক্রিকেট লিগে উদ্ধোধনী দিনেই সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে অপরাজিত ছিলেন তিনি। প্রথম দিনের অপরাজিত ১০৩ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন ব্যাট করতে নেমে একাই দ্বিশতক তুলে নেন সেই রনি তালুকদার। সোমবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বরিশালের বিপক্ষে একাই ২২৭ রান সংগ্রহ করেছে তরুণ এই ব্যটসম্যান। এর আগে প্রথম দিনে ১৩৯ রানে অলআউট হওয়া বরিশালের বিপক্ষে ৩৯ ওভারে বিনা উইকেটে দলীয় ১৮০ রান নিয়ে ৪১ রানের লিড পায় ঢাকা । দ্বিতীয় দিন ব্যাট করতে নেমে আব্দুল মজিদ ছয় রান সংগ্রহ করে ব্যক্তিগত ৭৬ রানে কামরুল ইসলামের বলে বোল্ড হন। তবে ওয়ানডাউনে ব্যাট করতে নামা রকিবুল হাসান রনি তালুকদারের সঙ্গে ব্যাট করতে নেমে শক্ত জুটি গড়েন। দুজনে মিলে গড়েন ২২৬ রানের জুটি। ততক্ষনে রনি পৌঁছে যান নিজের দ্বিশতকে। আর রকিবুলও নিজের সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে নেন।

অপু বিশ্বাসকে বাংলামেইলের শুভেচ্ছা উপহার

২৬ জানুয়ারি দেশের অন্যতম জনপ্রিয় অনলাইন সংবাদ মাধ্যম বাংলামেইলটোয়েন্টিফোর ডটকম এর পক্ষ থেকে বাংলা চলচ্চিত্রের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপু বিশ্বাসকে শুভেচ্ছা উপহার তুলে দেওয়া হয়। অপু বিশ্বাসের হাতে শুভেচ্ছা উপহার তুলে দেন বিনোদন করেসপন্ডেন্ট দেওয়ান পারভেজ ও কনট্রিবিউটর করেসপন্ডেন্ট মিঠু হালদার।

সন্তান নয়, নিজেকে শাসন করুন

আদরের সন্তানকে মানুষের মতো মানুষ করে গড়তে বাবা-মা থাকেন সব সময় উদগ্রীব। কখনো শাসনের মাত্রাটা একটু বেশি করে ফেলেন আবার কখনো অতি আদরে বাদর বানিয়ে বসেন। এসবই শিশুর ভবিষ্যতের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। তাই সবসময় সন্তানের ভুল না ধরে সংশোধন আনুন নিজের আচরণে। শিশুকে সুন্দর একটি ভবিষ্যত দিতে আপনি যা করতে পারেন... অতিরিক্ত শাসন নয় হয়তো আপনি অতিরিক্ত রাগী। কোনো ধরনের দোষ ত্রুটি নিজে করতে পছন্দ করেন না, অপরেরটাও পছন্দ হয়না। তার প্রভাব বাড়ির শিশুটির ওপর পড়বে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু ছোট মানুষের আচরণে কিছু সমস্যা থাকবে, তার কাজে ভুল থাকবে, যখন তখন কাজের সময় ঝামেলাও করতে পারে। তাই বলে তাকে অতিরিক্ত শাসন করা ঠিক নয়। সব সময় কড়া শাসনে না রেখে ধৈর্য ধরে বোঝাতে হবে। শিশুটির মনের মধ্যে অযথা ভয় সৃষ্টি না করে সহজে বোঝানোর অভ্যাস গড়ে তুলুন।
দেশের একমাত্র রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল অপারেটর টেলিটক থ্রিজি সেবা চালু করার পর এখন গ্রাহক সংখ্যা বাড়ছে। যদিও অন্য অপারেটরদের তুলনায় গ্রাহক সংখ্যা থেকে পিছিয়ে আছে টেলিটক। একমাত্র রাষ্ট্রয়াত্ব অপারেটর টেলিটক প্রথম থ্রিজি সেবা চালু করলেও সাফল্য তুলনামূলকভাবে কম। ২০১৪ সালের নভেম্বর পর্যন্ত ৩৮ লাখ গ্রাহক টেলিটকের (বিটিআরসির তথ্য মতে)। কোন পথে এগুচ্ছে টেলিটক, গ্রাহক বৃদ্ধিতে কি উদ্যোগ? এমন সব প্রশ্নের উত্তর দিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো. ফয়জুর রহমান চৌধুরী।

সরকার জনগণের কাছে দায়বদ্ধ, বিটিআরসি নয়

৫ জানুয়ারি গণতন্ত্র হত্যা দিবস পালনের অনুমতি না দেয়া এবং বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে অবরুদ্ধ করে রাখার প্রতিবাদে দেশব্যাপী চলছে টানা অবরোধ ও হরতাল। আর এ কর্মসূচির কারণে স্থবির হয়ে পড়েছে দেশ। এতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়েছে দেশের ব্যবসায়ীরা। যার মধ্যে সময় মতো পণ্যের শিপমেন্ট করতে না পারায় আবারো আন্তর্জাতিকভাবে ইমেজ সঙ্কটের পড়েছে দেশের পোশাক শিল্পখাত। বর্তমান অবস্থার কারণে সর্বনিম্ন ১০ থেকে সর্বোচ্চ ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ডিসকাউন্ট দাবি করছে বিদেশি ক্রেতারা। সেই সঙ্গে থাকছে অধিক খরচের বিমানযোগে পণ্য পাঠানোর দাবি। এ অবস্থায় ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে বলে দাবি গার্মেন্টস মালিকদের। দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে বড় ধরণের ভূমিকা রাখা এ খাতটি একের পর এক সঙ্কটের মুখে পড়ছে। ঢাকায় রানা প্লাজা ধসের ঘটনার পর আন্তর্জাতিকভাবে ভয়াবহ ইমেজ সঙ্কটের কবলে পড়েছিল গার্মেন্টস মালিকেরা। সেই সঙ্কট কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই যুক্ত হয়েছে ২০ দলের টানা অবরোধ কর্মসূচি। বিজিএমইএর পক্ষ থেকে জানানো হয়, এবারের হরতাল-অবরোধে তাদের ক্ষতি অনেক বেশি হবে। কারণ বড় দিন শেষ হয়ে বছরের শুরুতে বিদেশ থেকে নতুন নতুন অর্ডার পাওয়া সময় এখন। কিন্তু রাজনৈতিক সমস্যার কারণে ক্রেতারা অর্ডার নেয়ার জন্য আসতে পারছেন না।

রাজনীতির আগুনে ইমেজ সঙ্কটে পোশাক খাত

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) আইনে মোটরসাইকেলে চালকসহ দুই জন আরোহী বহনের অনুমতি থাকলেও সরকার প্রজ্ঞাপন জারি করে অনির্দিষ্টকালের জন্য তা নিষিদ্ধ করেছে। সাম্প্রতিক সময়ে এই দ্বিচক্রযানটি ব্যবহার করে নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড ঘটানোর পরিপ্রেক্ষিতে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। যদিও এ পদক্ষেপ কতোটা কার্যকর হবে তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। তারচেয়ে বড় কথা হলো- এই নিষেধাজ্ঞার ফলে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের কয়েক হাজার খেটে খাওয়া মানুষের পেটে লাথি মারা হলো! বরিশাল, নেত্রকোনাসহ বেশক’টি জেলায় এখন মোটরসাইকেলে যাত্রী বহন একটি বেশ ভালো পেশা হিসেবে দাঁড়িয়ে গেছে। অসংখ্য বেকারের এতে কর্মসংস্থান হয়েছে। কয়েক হাজার পরিবার তাদের উপার্জনের উপর নির্ভরশীল। এই নিষেধাজ্ঞা যদি টানা এক সপ্তাহ বলবত থাকে তাহলে নিঃসন্দেহে তাদের অভুক্ত থাকতে হবে।

কয়েক হাজার মানুষের পেটে লাথি

সচিবালয়সহ একাধিক গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা ও পেট্রোলপাম্পে বোমা হামলা চালানোর ঘৃণ্য পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে জামায়াত-শিবিরকে সহযোগিতা করে ঢাকাকে অকার্যকর করার পরিকল্পনা করছে জঙ্গিরা। আইএস এর শীর্ষ স্থানীয় নেতাদের সহযোগিতায় দেশীয় জঙ্গি সংগঠন জেএমবি, আনসারুল্লাহ বাংলা টিম ও হিযবুত তাহরীরের মাঠ পর্যায়ের সদস্যদের কাজে লাগানো হচ্ছে। পাকিস্তানে অবস্থানকারী জেএমবির স্বঘোষিত আমির ইজাজ আহমেদের পরিকল্পনায় এমন আরো ভয়াবহ ছক কষে ইতোমধ্যে সংগঠিত আইএস মতাদর্শের জঙ্গিরা। এ বিষয়ে ডিবির উপ-কমিশনার (ডিসি) শেখ নাজমুল আলম বলেন, ‘আইএসআইএস’র অর্থে মারাত্মক অস্ত্র সংগ্রহ করে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানগুলোকে লক্ষ্যবস্তু করে ক্ষতিসাধন, হুমকি সৃষ্টি ও খেলাফত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠাই গ্রেপ্তার জঙ্গি সদস্যদের একমাত্র লক্ষ্য।’

বাংলাদেশে আইএস’র ভয়াবহ ছক