সোমবার, ২৪ নভেম্বর ২০১৪ ।

আর বাকি

লতিফকে গ্রেপ্তারে আদালতের তাগাদা

গত ১ অক্টোবর আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট এএনএম আবেদ রেজা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মিজানুর রহমানের আদালতে মামলা দায়ের করেন। ওইদিন বিচারক আসামিকে ২৮ অক্টোবর আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন দেন। তাকে না পেয়ে গত ১৬ অক্টোবর সচিবালয়ে লটকিয়ে সমন জারি করা হয়। এরপর গত ২৮ অক্টোবর লতিফ সিদ্দিকী আদালতে হাজির না হওয়ায় তার বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি করেন আদালত। কিন্তু গ্রেপ্তার না করায় সোমবার ১২ ঘন্টার মধ্যে তাকে গ্রেপ্তার করার জন্য বাদী একটি আবেদন করেন সংশ্লিষ্ট আদালতে। পরে বিচারক শুনানি শেষে কোনো সময়সীমা উল্লেখ না করে তাকে্ গ্রেপ্তার করার জন্য নির্দেশ দেন। আদালত সূত্রে জানা গেছে, গ্রেপ্তারের ওই আদেশ রমনা থানায় পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত ২৮ সেপ্টেম্বর বিকেলে নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের একটি হোটেলে নিউইয়র্কে বসবাসরত টাঙ্গাইলবাসীর সঙ্গে মতবিনিময় করেন লতিফ সিদ্দিকী। ওই সময় তিনি বলেন, ‘আব্দুল্লাহর পুত্র মোহাম্মদ চিন্তা করলো এ জাজিরাতুল আরবের লোকেরা কীভাবে চলবে? তারাতো ছিল ডাকাত। তখন সে একটা ব্যবস্থা করলো যে আমার অনুসারীরা প্রতিবছর একবার একসঙ্গে মিলিত হবে। এর মধ্য দিয়ে একটা আয়-ইনকামের ব্যবস্থা হবে।’

লতিফের ব্যাপারে স্পিকারের রুলিং দাবি

লতিফ সিদ্দিকীর সংসদ সদস্য পদ আছে কি না এ বিষয়ে স্পিকারের রুলিং দাবি করেছেন স্বতন্ত্র সদস্য রুস্তম আলী ফরাজী। দশম সংসদের চতুর্থ অধিবেশনে সেমাবার অনির্ধারিত আলোচনায় তিনি এ দাবি তোলেন। তিনি বলেন, ‘আইনগতভাবে তার নামে ওয়ারেন্ট আছে ২২টি। তিনি এমপি আছেন কি না এ বিষয়ে স্পিকার রুলিং দিবেন। তা না হলে ইসিতে পাঠিয়ে তিনি এমপি আছেন কি না, সেটা ঠিক করতে হবে।’ তিনি আরো বলেন, ‘লতিফ সিদ্দিকীর বিষয়টিকে হালকাভাবে দেখলে চলবে না। তার বিষয়ে একটা সিদ্ধান্ত স্পিকারকে দিতে হবে।’

স্পিকারের অনুমতি লাগবে না: শিরীন শারমিন

টাঙ্গাইল থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য ও বহিষ্কৃত মন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকীকে গ্রেপ্তারে স্পিকারের অনুমতি লাগবে না বলে জানিয়েছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। সোমবার সংসদ অধিবেশন শুরুর আগ মুহূর্তে তার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের একথা বলেন তিনি। তিনি বলেন, ‘কার্যপ্রণালী বিধি অনুযায়ী শুধু সংসদ লবি, গ্যালারি ও চেম্বার থেকে কোনো সংসদ সদস্যকে গ্রেপ্তার করার ক্ষেত্রে স্পিকারের অনুমতির প্রয়োজন হয়। এছাড়া কোনো অনুমতির প্রয়োজন হয় না।’
ছোটখাট গড়নের একজন যুবক। পেশায় তিনি একজন মোটর মেকানিক। স্ক্রু ড্রাইভার আর হাঁতুড়ি নিয়েই গ্যারেজেই তার সংসার হওয়ার কথা। কিন্তু ২৬ বছর বয়সী এই যুবক মজেছেন অন্য এক প্রেমে! তিনি যে মোটর মেকানিকের কলাকৌশল রপ্ত করেও নিজেকে সপে দিয়েছেন ক্রিকেটের প্রেমে! শুধু ক্রিকেট খেলার প্রেমে মজেছেন বললে ভুল হবে তিনি শুধুই মাতাল হয়েছেন সাকিব-তামিম-মুশফিকদের ক্রিকেটিয় প্রেমে! তার প্রেমের উন্মাদনায় রীতিমত বিস্মিত হয় পুরো জাতি, আন্দোলিত করে তুলে বাংলাদেশি ক্রিকেট ভক্তদের। উৎসাহিত হয় পুরো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। ২০০৮ সাল থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের দেশের মাটিতে অনুষ্ঠিত সব খেলায় তাকে দেখা গেছে রয়েল বেঙ্গল টাইগার রূপে। নিজের পুরো শরীরকে রং তুলিতে আঁকিয়ে ডোরাকাটা দাগে বাঘের অবয়বে হাজির হন প্রতিটি ম্যাচে।
রেকর্ডকৃত মামলাটি দুদকের তফসিলভুক্ত হওয়ায় সিআইডি ও মহানগর হাকিম আদালত হয়ে তদন্তের জন্য দুদকে আসে। আর এ তদন্তের দায়িত্ব পড়ে দুদকের উপ-পরিচালক মমতাজ আরা শাহীনের ওপর। তদন্ত প্রক্রিয়ায় তিনিজিজ্ঞাসাবাদের জন্য মামলার একমাত্র আসামি ও প্রতারক আসাদুল্লাহ শেখ সোহেলের স্থায়ী ঠিকানা নরসিংদী, শিবপুরের আশ্রাবপুর, গির্জাপাড়া এবং ঢাকার উত্তরা রাজলক্ষীর ঠিকানায় নোটিশ পাঠালেও তিনি হাজির হননি। এ পরিস্থিতে গত ৯ নভেম্বর বিকেলে গোয়েন্দা পুলিশের ৫ সদস্যের একটি টিম উত্তরা এলাকা থেকে আসাদুল্লাহ শেখ সোহেলকে গ্রেপ্তার করে। ওই টিমে ছিলেন গোয়েন্দা পুলিশের এসআই মিজানুর রহমান এবং হাবিবুর রহমান।
সংসারে নতুন অতিথি আসলে তাকে স্বাগত জানাতে ভুলবেন না। প্রথমত দিনটি কেমন যেনে সাজানো গোছানো মনে হবে আপনার কাছে। বহির্বিশ্বের বাণিজ্যিক চাপ আপনার মাথাতেও ঘুরপাক খাবে। অনৈতিক কাজের জন্য সম্মান পাবেন কিন্তু মনে রাখবেন এর যথার্থ ফল আপনাকে হাড়ে হাড়ে টের পেতে হবে একদিন।
নিয়োগ, বদলি, পদায়ন, পদোন্নতি, ঋণ অনুমোদনসহ অভ্যন্তরীণ সব ধরনের কাজ করে দিতে পারেন তারা। রাজনৈতিক লেজুড়বৃত্তিকে পুঁজি করে এ ধরনের অযাচিত কাজ করে যাচ্ছেন রাষ্ট্রায়ত্ত রূপালী ব্যাংকের সিবিএ নামধারী শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের নেতারা। ব্যাংকটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, রূপালীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, পরিচালনা পর্ষদ কাউকেই তারা পাত্তা দেন না। এই সিবিএ নেতাদের কাছে জিম্মি হয়ে আছেন সব শ্রেণীর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। খেয়ালখুশি মতো অনিয়ম দুর্নীতি নৈরাজ্য করছেন তারা। রূপালী ব্যাংকের সব শ্রেণীর কর্মচারীদের অভিযোগ, সিবিএ নেতাদের দৌরাত্ম্যে এক প্রকার কোণঠাসা রূপালী ব্যাংকের সাধারণ কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। মাসের পর মাস নেতারা অফিস ফাঁকি দিয়ে যাচ্ছেন। ব্যাংকগুলোর প্রধান কার্যালয়ে বিভিন্ন ফ্লোরে বিশাল জায়গা দখল করে রাজনৈতিক কার্যালয় খুলে বসেছেন। সব সরকারের আমলেই অনৈতিক সুবিধা ভোগ করে আসছেন তারা।
সাবেক মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীকে নিয়ে রাজনৈতিক কর্মসূচির মারপ্যাঁচে পড়েছে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনীর ৩১ লাখ পরীক্ষার্থী। ২৫ নভেম্বর মঙ্গলবার প্রাথমিক সমাপনীতে বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় এবং ইবতেদায়ি সমাপনীতে পরিবেশ পরিচিতি সমাজ ও পরিবেশ পরিচিতি বিজ্ঞান পরীক্ষা রয়েছে।
ভিয়েতনাম যুদ্ধে অংশ নেয়া হ্যাগেল ২০১৩ সালের গোড়ার দিকে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রীর পদে যোগ দেন। তবে মার্কিন প্রশাসনের কোন কর্মকর্তা হ্যাগেলের পদত্যাগ নিয়ে মন্তব্য করতে চাননি। ওবামার আনুষ্ঠানিক ঘোষণার আগে এ নিয়ে কেউ সরকারিভাবে কথা বলতে চান না। মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের একজন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, হ্যাগেল সোমবার সকালে প্রেসিডেন্ট ওবামার কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন। প্রেসিডেন্ট তা গ্রহণ করেন। তবে সিনেটে নতুন প্রতিরক্ষামন্ত্রী অনুমোদন না পাওয়া পর্যন্ত চাক হ্যাগেল দায়িত্ব পালন করে যেতে সম্মত হয়েছেন। ওই কর্মকর্তা জানান, হ্যাগেল এবং ওবামা উভয়েই সম্মত হয়েছেন যে, পেন্টাগনে এখন নতুন নেতৃত্বের প্রয়োজন। নিউইয়র্ক টাইমস পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে, মধ্যপ্রাচ্যে আইএস জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ওয়াশিংটন তার কৌ

ফাইনালের মহানায়ক ডি সিলভা

১৯৯৬ সালে উপমহাদেশেই বসেছিল ষষ্ঠ বিশ্বকাপের আসর। আয়োজক ছিল ভারত, পাকিস্তান এবং শ্রীলংকা। ভারত-পাকিস্তান গোণার মধ্যে থাকলেও এই তালিকায় কখনোই ছিল না শ্রীলংকার নাম। কিন্তু কার্যত তাই ঘটলো যা কেউ ভাবেননি আগে। এক রুপকথার জন্ম দিয়ে অর্জুনা রানাতুঙ্গার হাত ধরে বিশ্বকাপ ঘরে তুলে শেষ হাসি হাসলো লংকানরা। রানাতুঙ্গা যদি হন কিংবদন্তি, সেখানে মহানায়ক বলতেই হবে অরবিন্দ ডি সিলভাকে। এই ডি সিলভাই লাহোরের ফাইনালে কি বল, কি ব্যাট দু জায়গাতেই সমান পারফর্ম করে লংকানদের ক্রিকেট ইতিহাস সারা বিশ্বের কাছে উঁচুতে তুলে ধরেছেন। এবার আসুন দেখা যাক, ১৭ মার্চ, ১৯৯৬ সালে লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে ডি সিলভা কিভাবে লংকানদের শিরোপা উল্লাসে ভাসালেন?

বেঙ্গল টাইগারের বিশ্বকাপ যাওয়া অনিশ্চিত

ছোটখাট গড়নের একজন যুবক। পেশায় তিনি একজন মোটর মেকানিক। স্ক্রু ড্রাইভার আর হাঁতুড়ি নিয়েই গ্যারেজেই তার সংসার হওয়ার কথা। কিন্তু ২৬ বছর বয়সী এই যুবক মজেছেন অন্য এক প্রেমে! তিনি যে মোটর মেকানিকের কলাকৌশল রপ্ত করেও নিজেকে সপে দিয়েছেন ক্রিকেটের প্রেমে! শুধু ক্রিকেট খেলার প্রেমে মজেছেন বললে ভুল হবে তিনি শুধুই মাতাল হয়েছেন সাকিব-তামিম-মুশফিকদের ক্রিকেটিয় প্রেমে! তার প্রেমের উন্মাদনায় রীতিমত বিস্মিত হয় পুরো জাতি, আন্দোলিত করে তুলে বাংলাদেশি ক্রিকেট ভক্তদের। উৎসাহিত হয় পুরো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। ২০০৮ সাল থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের দেশের মাটিতে অনুষ্ঠিত সব খেলায় তাকে দেখা গেছে রয়েল বেঙ্গল টাইগার রূপে। নিজের পুরো শরীরকে রং তুলিতে আঁকিয়ে ডোরাকাটা দাগে বাঘের অবয়বে হাজির হন প্রতিটি ম্যাচে।

থামছেই না রূপগঞ্জ

প্রিমিয়ার লিগের পঞ্চম রাউন্ডে এসে তৃতীয় জয়ের দেখা পেল শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। সোমবার বিকেএসপির ৪ নম্বর মাঠে ব্রাদার্স ইউনিয়নকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে তারা। বিকেএসপির ৩ নম্বর মাঠে একই ব্যবধানে ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাবকে পরাভূত করেছে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। এ নিয়ে গাজী ট্যাংক নাম বাদ দিয়ে নতুন রূপে আবির্ভূত হওয়া ক্লাবটি পাঁচ ম্যাচের সবকটিতেই জয়ের স্বাদ নিল। ফতুল্লায় আরেক ম্যাচে প্রাইম দোলেশ্বরের বিপক্ষে ৪ রানের জয় পেয়েছে কলাবাগান ক্রিকেট একাডেমী।

আকাশ থেকে নামলেন রিয়া

সোমবার দুপুর থেকেই এফডিসির জসিম ফ্লোরের সামনে বিশাল জটলা। কারণ ভেতরে নাকি আইটেম গানের শ্যুটিং হবে। আর সেখানে নাচবেন কলকাতা থেকে আগত এক নায়িকা। উৎসুক জনতার সঙ্গে বাংলামেইল টিমও অপেক্ষা করতে লাগলো। কখন আসবেন তিনি।

যে হাত ধরে চোখ বুঁজে চলা যায়

বোধ ও বুদ্ধির সঙ্গে দায়িত্বশীলতার অনুভূতি জাগে দাম্পত্য জীবনে। এই জীবনে প্রতিটি মানুষের কর্মদক্ষতার সর্বোচ্চ স্বীকৃতি পাওয়া, তা ভোগ করা এবং কর্তব্য পালনেরও সুযোগ আসে। জীবনের এই মোক্ষম সময়ে দরকার হয় একজন উপযুক্ত সঙ্গীর। যার সঙ্গে জীবনের সুখ-দুঃখের প্রতিটি মুহূর্ত পার করা যায়, বিশ্বস্ততার সঙ্গে হাত ধরে পথ চলা যায় চোখ বুঁজে। এমন একটি মনের মানুষের সন্ধান পেতে সঙ্গীর আচরণের যে দিকগুলো অবশ্যই জানতে হবে তা হলো-
ছোটখাট গড়নের একজন যুবক। পেশায় তিনি একজন মোটর মেকানিক। স্ক্রু ড্রাইভার আর হাঁতুড়ি নিয়েই গ্যারেজেই তার সংসার হওয়ার কথা। কিন্তু ২৬ বছর বয়সী এই যুবক মজেছেন অন্য এক প্রেমে! তিনি যে মোটর মেকানিকের কলাকৌশল রপ্ত করেও নিজেকে সপে দিয়েছেন ক্রিকেটের প্রেমে! শুধু ক্রিকেট খেলার প্রেমে মজেছেন বললে ভুল হবে তিনি শুধুই মাতাল হয়েছেন সাকিব-তামিম-মুশফিকদের ক্রিকেটিয় প্রেমে! তার প্রেমের উন্মাদনায় রীতিমত বিস্মিত হয় পুরো জাতি, আন্দোলিত করে তুলে বাংলাদেশি ক্রিকেট ভক্তদের। উৎসাহিত হয় পুরো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। ২০০৮ সাল থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের দেশের মাটিতে অনুষ্ঠিত সব খেলায় তাকে দেখা গেছে রয়েল বেঙ্গল টাইগার রূপে। নিজের পুরো শরীরকে রং তুলিতে আঁকিয়ে ডোরাকাটা দাগে বাঘের অবয়বে হাজির হন প্রতিটি ম্যাচে।

বেঙ্গল টাইগারের বিশ্বকাপ যাওয়া অনিশ্চিত

দেশের কোথাও আমন সংগ্রহের অভিযান শুরু হয়নি এখনো। সরকারের গুদামে জমা হয়নি এক ছটাক আমন চালও। অথচ খাদ্যমন্ত্রী সচিবালয়ে খাদ্য পরিকল্পনা ও পরিধারণ কমিটির সভা শেষে বলেছিলেন, আগামী ১৫ নভেম্বর থেকে আমন সংগ্রহের অভিযান শুরু হবে এবং তা চলবে ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ সাল পর্যন্ত। বাস্তবে এখনো বিভাজন শুরু হয়নি। অর্থাৎ বাংলাদেশে প্রায় ১৮ হাজার চালের মিলের কাছে থেকে তাদের সক্ষমতা অনুয়ায়ী কি পারিমান চাল সংগ্রহ করা হবে তার একটি তালিকা খাদ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হলেও তা এখনো অনুমোদন দেয়া হয়নি। তবে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহ নাগাদ গুদামে চাল উঠতে পারে বলে জানিয়েছেন খাদ্য ভবনের এক কর্মকর্তা।

শুরু হয়নি আমন সংগ্রহের অভিযান 

যেনতেনভাবে নয়, অসন্তোষ কমিয়ে নেতাকর্মীদের মানসিকভাবে প্রস্তুত করে সংগঠনকে আরো বেশি শক্তিশালী এবং গতিশীল করতে অতিরিক্ত সময় নিয়ে চলছে ঢাকা মহানগর বিএনপির পুনর্গঠন। এ কার্যক্রম সন্তোষজনক পর্যায়ে থাকলেও সরকারের বাধা আর দলীয় সীমাবদ্ধতার কারণে এ নিয়ে এখনই কিছু না বলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নেতারা। কঠোর গোপনীয়তায় নগর বিএনপির পুনর্গঠন সম্পন্ন করতে চান তারা। ঢাকা মহানগর বিএনপি চাঙ্গা করতে গত জুনে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসকে আহ্বায়ক এবং তরুণ নেতা হাবিব উন নবী খান সোহেলকে সদস্য সচিবের দায়িত্ব দেন চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। কমিটি গঠনের এক মাসের সময়সীমা বেঁধে দেয়া হয়। কিন্তু সময়সীমা পার হলেও কমিটি গঠন করা যায়নি। কমিটির কার্যক্রম নিয়ে বাংলামেইলের সঙ্গে কথা বলেছেন নগর বিএনপির সদস্য সচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল।

গোপন কৌশলে নগর বিএনপি

রীতিমতো নিয়মে পরিণত হয়েছে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষায় অংশকারীদের কাছে থেকে ফরম পূরণ বাবদ বাড়তি টাকা আদায়। যে স্কুল সরকার নির্ধারিত ফি’র চেয়ে যতবেশি আদায় করতে পারবে তারা যেন ততো দামি স্কুল। নানা অভিযোগ, সমালোচনার মধ্যেও অতিরিক্ত ফি আদায় বন্ধে অসহায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। অতিরিক্ত ফি না আদায়ে হাইকোর্টের নির্দেশনা থাকলেও তা মানছে না অনেক স্কুল কর্তৃপক্ষ। তবে অভিভাবক ও সংশ্লিষ্টদের দাবি, মন্ত্রণালয় আন্তরিক হলেই বন্ধ হতে পারে এই অতিরিক্ত ফি আদায়। তাদের মত হচ্ছে, পরীক্ষার এই ফি পাবে শিক্ষা বোর্ড। তাই স্কুলের পরিবর্তে শিক্ষার্থীদের সরাসরি বোর্ডে ফি জমা দেয়ার ব্যবস্থা করতে পারে সরকার।

অতিরিক্ত ফি আদায়ে সুযোগ দিচ্ছে মন্ত্রণালয়!