বুধবার, ০১ এপ্রিল ২০১৫ ।

প্রশিক্ষণ বিমান বিধ্বস্ত, কো-পাইলট নিহত

রাজশাহী শাহ মখদুম বিমানবন্দরে প্রশিক্ষণ বিমান দুর্ঘটনায় কো-পাইলট তামান্না নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ইন্সটেক্টর সাইদ কামাল গুরুতর আহত হয়েছেন। তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার দুপুর ২টায় এঘটনা ঘটে। বাংলাদেশ ফ্লাইং একাডেমির ইঞ্জিনিয়ার রুমি জানান, ইন্সটেক্টর সাইদ কামাল ও কো-পাইলট তামান্নাসহ দুইজন একটি প্রশিক্ষণ বিমান উড়াচ্ছিলেন। বিমানটি রানওয়েতে টেকঅফ করার সময় ইঞ্জিনে আগুন ধরে যায়। এতে অগ্নিদগ্ধ হয়ে কো-পাইলট তামান্না ঘটনাস্থলেই মারা যান। বিমানে থাকা প্রশিক্ষক সাইদ কামাল অগ্নিদগ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন। তাকে রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আইসিসি থেকে কামালের পদত্যাগ

আইসিসির সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন আহমমুস্তফাকামাল।আজ দুপুর একটায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নেমে সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

ঢাকা সিটি নির্বাচনকে চ্যালেঞ্জ করে রিট

ঢাকা উত্তর ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের বিধিমালা চ্যালেঞ্জ করে একটি রিট আবেদন করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী ড. মোহাম্মদ ইউনূস আলী আকন্দ এ রিট আবেদনটি করেন। রিটে সিটি করপোরেশন ‍নির্বাচন আইন ২০১০ ও ২০১৩ (সংশোধিত) -এর কয়েকটি ধারাকে চ্যালেঞ্জ করা হয়েছে।
মুক্তমনা ব্লগার ওয়াশিকুর রহমান বাবুকে হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী মাসুম আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য বলে ধারণা করছেন গোয়েন্দারা। তার পরিকল্পনাতেই বাবু হত্যাকাণ্ডে নেতৃত্ব দেয় তাহের। তবে হত্যাকাণ্ডের প্রধান দুই আসামি এখনো ধরা পড়েনি। নির্দেশ দিয়ে একই কায়দায় হত্যার পরিকল্পনা করে আনসারুল্লাহ বাংলা টিম। এদিকে গ্রেপ্তার হওয়া জিকরুল্লাহ নিষিদ্ধ জেএমবির সদস্য বলে জানিয়েছে পুলিশ। ২০১২ সালের সেপ্টেম্বর মাসে নরসিংদীতে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরকসহ তাকে গ্রেপ্তার করেছিল আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। এরপর এক মাস জেল খেটে জামিনে বের হয়ে পলাতক ছিল সে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, পলাতক খুনিরা আনসারুল্লাহ বাংলা টিম বা জেএমবির সদস্য বলেই ধারণা পুলিশের তদন্তকারীদের। দুই সংগঠনেই একই কায়দায় হত্যা করা ‘স্লিপার সেল’ রয়েছে। এই সেলের দায়িত্বে থাকে সংগঠনের একজন, যিনি হত্যার পরিকল্পনা করেন।
ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুল আউয়াল মিন্টুর মনোনয়ন অবৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে তার বড় ছেলে তাবিথ আউয়াল মিন্টুর মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। বুধবার রাজধানীর আগারগাঁওস্থ ঢাকা উত্তরের রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাইকালে রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. শাহ আলম এ ঘোষণা দেন। এর আগে আব্দুল আউয়াল মিন্টুর পক্ষে মনোনয়নপত্র কেনেন তার ছেলে তাফসীরুল এম আউয়াল। কিন্তু তার মনোনয়ন বাতিল হওয়ার আশঙ্কায় মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন অর্থাৎ ২৯ মার্চ মিন্টুর ছেলে তাবিথ আউয়ালের পক্ষেও মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করা হয়।
উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাইয়ের পর মেয়র পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি আনিসুল হকের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। বুধবার বেলা ১১টায় আগারগাঁওয়ে জাতীয় স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউটে অবস্থিত অস্থায়ী অফিসে ঢাকা উত্তরের রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ শাহ আলম মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাই করে তার মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করেন।
বিশ্বের প্রবীণতম নারী হিসেবে স্বীকৃত জাপানি নাগরিক মিসাও ওকাওয়া মারা গেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছির ১১৬ বছর। আর মাত্র এক সপ্তাহ পরেই ১১৭তম জন্মবার্ষিকী পালন করার কথা ছিল তার। বুধবার ওসাকা শহরের এক নার্সিংহোমে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান বৃদ্ধা ওকাওয়া। তার নাতি এবং হোমের কর্মীরা তার মৃত্যুশয্যায় উপস্থিত ছিলেন।
বিদ্যুৎখাতের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী ১৪টি নির্দেশনা দিয়েছিলেন। কিন্তু বছর পেরিয়ে গেলেও অধিকাংশ নির্দেশ এখনো ঝুলে আছে। কয়েকটি আংশিক বা অর্ধেক বাস্তবায়িত হয়েছে। বাস্তবায়ন হার বিবেচনা করলে মাত্র ২৫ শতাংশ অগ্রগতি হয়েছে। গত বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিদ্যুৎ বিভাগে অফিস করেন। এ সময় তিনি এসব নির্দেশনা দিয়েছিলেন। এ মন্ত্রণালয়টি তার অধীনে। এর মধ্যে আগামী এপ্রিল মাসের ৯ তারিখ প্রধানমন্ত্রী আবার এ মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে আসছেন। তার আগমন উপলক্ষে বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় আবারও সরব হয়ে উঠেছে। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা নিজেদের মধ্যে দফায় দফায় বৈঠক করছেন। যেখানে গত এক বছরে এ বিষয়গুলো নিয়ে মাত্র তিন/চারবার সভা করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে- দুর্গম এলাকায় নবায়নযোগ্য জ্বালানির প্রসার, বিদ্যুৎ চালিত পরিবহনের গ্রিডের পরিবর্তে সৌর বিদ্যুতের ব্যবহার, প্রতিবেশী দেশ থেকে বিদ্যুৎ আমদানি বৃদ্ধি, পটুয়াখালীতে নির্মাণাধীন পায়রা সমুদ্রবন্দরে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে নির্ধারিত জায়গা বন্দর কর্তৃপক্ষ নর্থ-ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানির কাছে হস্তান্তরের ব্যবস্থা, বিদ্যুৎখাতকে শ্রম আইনের আওতার বাইরে রাখার ব্যবস্থা, ব্যক্তিমালিকানাধীন প্রকল্পের মতো সরকারি বিদ্যুৎ প্রকল্প প্রণোদনা দেয়া, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডকে (পিডিবি) করপোরেশনে পরিণত করা, এ খাতের সংস্কার করে নতুন কয়েকটি সঞ্চালন কোম্পানি গঠন, বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য পৃথক অপারেশন অ্যান্ড মেইনটেন্যান্স (ওঅ্যান্ডএম) কোম্পানি গঠন ইত্যাদি।
গৌরীপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে প্রতি কর্মদিবসে আন্তঃনগর ট্রেনসহ মোট ২৮টি ট্রেন চলাচল করে। সে হিসাবে আধাঘণ্টা পরপর বিভিন্ন ট্রেন রেলওয়ে স্টেশন থেকে গন্তব্যের উদ্দেশে ছেড়ে যায়। কিন্তু গৌরীপুর উপজেলার রেলওয়ে সীমানার মধ্যে মাত্র ২টি স্বীকৃত রেলক্রসিংয়ে ট্রেন দুর্ঘটনা এড়ানোর জন্য প্রহরী রয়েছে। এরমধ্যে একটি রেলক্রসিং গৌরীপুর রেলওয়ে স্টেশন সংলগ্ন ২নং রেলওয়ে গেইট এলাকায় অবস্থিত। অপরটি গৌরীপুর-ভৈরব রেলওয়ে সড়কের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অবস্থিত। নিয়ম অনুযায়ী ওই দুইটি রেলক্রসিংয়ে প্রত্যেকটিতে ৩ জন করে মোট ৬ জন লোকবল থাকার কথা। কিন্তু দুই রেলক্রসিংয়ে প্রত্যেকটিতে একজন করে মোট ২ জন প্রহরী আছে মাত্র। তবে এই দুই রেলক্রসিংয়ে কর্মরত দুই জন প্রহরীর কেউ সরকারি ভাবে নিয়োগপাপ্ত নয়। দৈনিক চুক্তিভিত্তিক তারা কাজ করে থাকেন। প্রহরীদের একজন রঞ্জন চন্দ্রের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, দুই বছর ধরে তিনি দৈনিক চুক্তিভিত্তিক কাজ করে যাচ্ছেন। তবে তার চাকরি এখনো সরকারিকরণ হয়নি। নিয়ম অনুযায়ী এই রেলক্রসিংয়ে ৩ জন করে প্রহরী থাকার কথা। কিন্তু প্রহরী সঙ্কটের কারণে প্রায়ই তাকে নির্ধারিত সময়ের বেশি ডিউটি করতে হয়।
দল ম্যাচ জয় পরাজয় ড্র পয়েন্ট
নিউজিল্যান্ড ১২
অস্ট্রেলিয়া
শ্রীলংকা
বাংলাদেশ
ইংল্যান্ড
আফগানিস্তান
স্কটল্যান্ড
দল ম্যাচ জয় পরাজয় ড্র পয়েন্ট
ভারত ১২
দক্ষিণ আফ্রিকা
পাকিস্তান
ওয়েস্ট ইন্ডিজ
আয়ারল্যান্ড
জিম্বাবুয়ে
আরব আমিরাত

ইব্রার নৈপুণ্যে সুইডেনের সহজ জয়

জাতান ইব্রাজিমোভিচের দুর্দান্ত নৈপূণ্যে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে ইরানকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে সুইডেন। সুইডিশদের হয়ে একটি গোল করার পাশাপাশ অপর এক গোলে অ্যাসিস্ট করেন ইব্রা।

আইসিসি থেকে কামালের পদত্যাগ

আইসিসির সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন আহমমুস্তফাকামাল।আজ দুপুর একটায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নেমে সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

বিদায় বললেন মিলসও

নিউজিল্যান্ডের পেসার কাইল মিলস সব ধরনের ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন। জাতীয় দলের সতীর্থ ড্যানিয়েল ভেট্টরি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর একদিন পর মিলস ক্যারিয়ারের ইতি টানার ঘোষণা দেন।

পরীক্ষার কারণে পেছাল পড়শীর শুটিং

বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী পড়শী। এ পর্যন্ত উপহার দিয়েছেন অনেক জনপ্রিয় গান। তবে গানের পাশাপাশি ‘মেন্টাল’ নামে একটি ছবিতে অভিনয় করতে যাচ্ছেন তিনি। তবে ছবির শুটিং শুরু হলেও এখনও পড়শী তার অংশের শুটিংয়ে অংশ নেননি।

প্রেমের মানসিকতা সুস্থ নাকি অসুস্থ?

আকাঙ্ক্ষিত প্রেমে পড়লে নাকি খাওয়া ঘুম স্বঘোষিত নিষিদ্ধ হয়ে যায়। দিন যায় রাত যায়, তবু না পায় ঘুম, না পায় খুধা। অস্থিরতা তাড়িয়ে নিয়ে বেড়ায় অজানার পথে। যোগাযোগ ঠিকমতো না হলে মানসিক চাপ থাকে, যোগাযোগ থাকলে চাপ আরও বাড়ে। এসময় আপনার মানসিকতার স্বাস্থ্য সুস্থ থাকে তো? বিজ্ঞানীরা এর উত্তর খুঁজতে রীতিমতো গবেষণা করেছেন। উত্তর পেয়েছেন নানাবিধ। আসুন জেনে নেয়া যাক।
ভারতে ইলিশ দিয়ে ফেনসিডিল আনার মতো বিনিময় বাণিজ্য প্রচলিত আছে অনেক আগে থেকেই। এখন মায়ানমার থেকে আসা ইয়াবা ট্যাবলেট বাংলাদেশ হয়ে ভারতে যাচ্ছে। বিনিময়ে আসছে অস্ত্র ও ফেনসিডিলের চালান। মাদক চোরাকারবারিরা এখন এভাবেই মাদক ও অস্ত্র ব্যবসা একসঙ্গে করছে। গোয়েন্দাদের তৎপরতায় এই বিনিময় বাণিজ্যের কৌশল ধরা পড়েছে। সম্প্রতি রাজধানীর ডেমরা এলাকা থেকে লক্ষাধিক পিস ইয়াবাসহ সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ী চক্রের দুই সদস্যকে আটক করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এটি রাজধানীতে উদ্ধার হওয়া ইয়াবার সবচেয়ে বড় চালান। এদের চার দিনের রিমান্ডে নিয়ে মাদক পাচারের অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়েছে গোয়েন্দারা। ডিবি পুলিশের একজন কর্মকর্তা বাংলামেইলকে জানান, দীর্ঘদিন ধরে মায়ানমার থেকে টেকনাফ হয়ে অবৈধভাবে ইয়াবা দেশে ঢুকছে। চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতার সুযোগ নিয়ে গত দুই মাসে দেশে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা মায়ানমার থেকে এসেছে।

বিনিমিয় বাণিজ্য: যাচ্ছে ইয়াবা আসছে অস্ত্র

আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচন ঘিরে রাজধানীতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি খারাপ হয়ে উঠতে পারে বলে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে উঠতি সন্ত্রাসীদের ব্যবহার করে ফায়দা নিতে পারে মাঠপর্যায়ের রাজনৈতিক নেতারা। তালিকাভূক্ত সাত শতাধিক উঠতি সন্ত্রাসী এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা রাখতে পারে। এমন শঙ্কা এবং চলমান অস্থিতিশীল পরিস্থিতি বিবেচনা করে অপরাধীদের গ্রেপ্তার করতে ‘ব্লকরেইড’ অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার রাত থেকে ঢাকার আটটি ক্রাইম জোনে কঠোর গোপনীয়তার সঙ্গে এ অভিযান শুরু হয়েছে। এ অভিযানের সন্দেহভাজনদের পাশাপাশি ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্তদের কোনো ব্যক্তি নির্বাচনে প্রার্থী অথবা নির্বাচনী প্রচারণা কাজে অংশ নিলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেবে পুলিশ। ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্তদের মধ্যে মেয়র পদে মনোনয়ন কিনেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ঢাকা মহনগরের আহ্বায়ক মির্জা আব্বাস, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুল আওয়াল মিন্টু, দলের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সালাম। এছাড়া কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র কিনেছেন বিএনপি-জামায়াতের শতাধিক নেতা। যাদের বিরুদ্ধেও রয়েছে ফৌজদারি মামলা।

আব্বাস-মিন্টুদের ঠেকাতে ‘ব্লকরেইড’ অভিযান!

জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) মালয়েশিয়া বিষয়ক সেল সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালে চুক্তি স্বাক্ষরের পর ১০ লাখ লোকের চাহিদাপত্র পাঠিয়ে তা সফলভাবে সম্পন্ন করতে পারলে ক্রমান্বয়ে আরও ৫ লাখ লোক নেয়ার আশ্বাস দেয় মালয়েশিয়ান সরকার। এজন্য ২০১৩ সালে নিবন্ধন করেন ১৪ লাখ ৪২ হাজার ৭৭৬ জন। নিবন্ধনকারীদের মধ্যে প্রাথমিকভাবে ৩৬ হাজার ৩৮ জনকে নির্বাচিত করা হয়। নির্বাচিতদের তিন ভাগে ভাগ করে ২৩ জানুয়ারি প্রথম দফায় পাঠানোর জন্য লটারিতে ১১ হাজার ৭৫৮ জনের যাবতীয় কাগজপত্র তৈরি করা হয়। এরপর আরও দুই ধাপে ২৪ হাজার ২৪০ জনের কাগজপত্র তৈরি করে মালয়েশিয়া পাঠায় বিএমইটি। প্রথম দফায় কাগজপত্র পাঠানো লোকদের মধ্যে ওই বছরের এপ্রিলে ১৯৮ জন শ্রমিককে মালয়েশিয়া পাঠানোর মাধ্যমে শুরু হয় দেশটিতে জনশক্তি রপ্তানি। এরপরই শুরু হয় ধীরে চলো নীতি। বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে চাপ দিলে দুই বছরে মাত্র সাড়ে ৭ হাজার ভিসা দেয় তারা। তবে ২০১৩ সালের এপ্রিলে পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু হলেও ২০১৫ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত সর্বমোট ৭ হাজার ১৬৬ জন কর্মী নিয়েছে তারা।

ঝুলে গেল ১৪ লাখ মানুষের ভাগ্য

আসন্ন ঢাকার বিভিক্ত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নিজ দলীয় মেয়র ও কাউন্সিলার প্রার্থীদের বিজয়ী করতে মরিয়া আওয়ামী লীগ। এমনকি এলক্ষ্য অর্জনে আচরণবিধির তোয়াক্কা করবেন না তারা। ইতিমধ্যে কেন্দ্র থেকে ১৫ টিম গঠন করা হয়েছে। দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের নেতা ও এলাকাভিত্তিক জাতীয় সংসদ সদস্যদের সমন্বয়ে টিমগুলো গঠন করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছেন সরকারের বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রীও। দলীয় সূত্রে এমনটাই জানা গেছে। নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী,জাতীয় সংসদ বা স্থানীয় সরকার নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রচারণায় এমপি-মন্ত্রীসহ কোনো ‘গুরুত্বপূর্ণ’ ব্যক্তি অংশ নিতে পারেন না। এমনকি নির্বাচনের আগে প্রার্থীদের কোনো অনুষ্ঠানেও তাদেরকে আমন্ত্রণ জানানো যাবে না। আচরণবিধি অনুযায়ী, গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি বলতে- প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, মন্ত্রী, চিফ হুইপ, ডেপুটি স্পিকার, বিরোধীদলীয় নেতা, সংসদ উপনেতা, বিরোধীদলীয় উপনেতা, প্রতিমন্ত্রী, হুইপ, উপমন্ত্রী বা তাদের সমমর্যাদার ব্যক্তি, সংসদ সদস্য ও সিটি করপোরেশনের মেয়রকে বোঝানো হয়েছে।

ডিসিসি দখলে মাঠে নামছেন মন্ত্রীরা