শুক্রবার, ২৭ মার্চ ২০১৫ ।

মালদ্বীপে আতঙ্কগ্রস্তদের জন্য হেল্পলাইন চালু

চলতি সপ্তাহে মালদ্বীপে দুই বাংলাদেশি শ্রমিককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। পৃথক স্থানে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। এর মধ্যে একজনের নাম শাহীর মিয়া। তার বাড়ি গাজীপুর জেলায় বলে জানা গেছে। মালদ্বীপে দৈনিক পত্রিকা ভাগুথু (http://www.vaguthu.mv/en) জানিয়েছে, রাজধানীর মালে হারবার সাইডে লিয়ানু নামে একটি ক্যাফেতে খুন হন শাহীন। কয়েকজন মুখোশধারী লোক গত রোববার ভোরের দিকে তাকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে। সোমবার রাতে আলিফ আতোল থড্ডু দ্বীপ থেকে বিলাল নামে আরেক বাংলাদেশির মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া মঙ্গলবার রাতে দুই বাংলাদেশির ওপর হামলা হয়। এতে একজন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। এসব ঘটনায় মালদ্বীপে বাংলাদেশি হাইকমিশন নীরব ভূমিকা পালন করছে বলে অনেকের অভিযোগ। সেদেশের সরকারও এই ঘটনার প্রতিবাদে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করাকে শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলে ঘোষণা দিয়েছে। এ নিয়ে চরম আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন মালদ্বীপে অবস্থানরত লাখখানেক বাংলাদেশি।

সিটি নির্বাচনে সরকার পতনের ছক বিএনপির

টানা আড়াই মাস আন্দোলন-সংগ্রাম করে ব্যর্থ হলেও এবার আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার পতনে ছক কষছে বিএনপি। আর সে কারণেই তিন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে তারা। এমনটাই উঠে এসেছে বিএনপি নেতাদের বক্তব্যে। গতকাল বৃহস্পতিবার লন্ডনে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশগ্রহণের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন। নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণা দিয়ে তারেক বলেন, ‘চলমান গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনের অংশ ও কৌশল হিসেবেই আসন্ন সিটি নির্বাচনে লড়াইয়ে থাকবে বিএনপি। সারাদেশে বিএনপির কোটি কোটি নেতাকর্মী রয়েছে। গত কয়েক মাসে তৃণমূলের অনেক নেতাকর্মীর সঙ্গে কথা বলেছি। তাদের মতামত নিয়েছি। তারা বলেছেন- শত জুলুম-নির্যাতন-কষ্ট সহ্য করে হলেও গন্তব্যে না পৌঁছা পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত রাখতে তারা বদ্ধপরিকর। তাদের মতামত, আন্দোলনের অংশ হিসেবেই এই ভোট ডাকাত সরকার এবং দলীয় নির্বাচন কমিশনের মুখোশ উন্মোচন করতেই নির্বাচনে যাওয়া প্রয়োজন।’

পদত্যাগ করে মনোনয়নপত্র নিলেন মনজুর

মেয়র পদ থেকে পদত্যাগ করে আবারো চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নিতে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র নিয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী এম মনজুর আলম। শুক্রবার বিকেল ৩টা ৪০ মিনিটে চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন কমিশন কার্যালয় থেকে রিটার্নিং অফিসার আব্দুল বাতেনের কাছ থেকে তিনি মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন মনজুর। এসময় তার সঙ্গে ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রিয় ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান। শুক্রবার দুপুর ৩টা ১৫ মিনিটে পদত্যাগের ঘোষণা দেন তিনি। সিটি কর্পোরেশনের কে বি আব্দুস সাত্তার মিলনায়তনে আয়োজিত এক সভায় প্যানেল মেয়র-১ মোহাম্মদ হোসেনের কাছে দায়িত্বভার হস্তান্তর করেন মনজুর আলম। এসময় সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী শফিউল আলম, সচিব রশিদ আহমদসহ কাউন্সিলররা উপস্থিত ছিলেন।
আমি আশাবাদী আমার অতীত রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড বিবেচনা করে দল আমাকে কাউন্সিলর পদে সমর্থন দেবে। জনগণের ভোটে আমি কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়ে ইনশাল্লাহ এলাকার মানুষের নাগরিক সুবিধা নিশ্চিতের পাশাপাশি মাদক, সন্ত্রাস ও ছিনতাই মোকাবিলা করে পুরান ঢাকার মানুষের মধ্যে স্বস্তি ফিরিয়ে নিয়ে আসব। পাশাপাশি এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবি খেলার জন্য মাঠ, একটি কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণ, পাঠাগার, ব্যায়ামাগার স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করবো।’ জাতীয় পার্টি সমর্থিত প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘আমি দীর্ঘদিন ধরেই জাতীয় পার্টি করে আসছি। আমাদের নেতা হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ তার আমলে যে কাজগুলো করেছেন তা কেউ করেনি। আমি নির্বাচিত হলে সে কাজগুলো অব্যাহত রাখবো। তাছাড়া এলাকার প্রতিটি রাস্তা ময়লা ফেলে ভরে রাখা হয়, সড়কগুলোতে বাতি নেই, সুয়ারেজের ৬০ ভাগ অকার্যকর। পানি, গ্যাস ও বিদ্যুৎ সমস্যা সমাধানে কাজ করবো।
বিষয়টি জানতে পেরে চিকিৎসক ও বিজ্ঞানীরা ছুটে যান কালাচি গ্রামে। কয়েকদিন সেখানে অবস্থান করে পরিবেশের বিষাক্ততা থেকে শুরু করে রোগীদের বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করেন তারা। তবে এসব পরীক্ষায় কোন উত্তর মেলেনি। আফ্রিকার ট্রাইপানোসোমিয়াসিসের মতো এটি জীবাণুঘটিত ঘুম রোগ কিনা তা জানার চেষ্টাও করেন বিজ্ঞানীরা। সব কিছু ছাপিয়ে সেই ফলাফল শূণ্য। অর্থাৎ বিজ্ঞানীরা এসব পরীক্ষার মাধ্যমে এ রোগের কোন যৌক্তিক কারণ খুঁজে পাননি।
লাঙ্গলবন্দে পদদলিত হয়ে ১১ পুণ্যার্থীর প্রাণহানির ঘটনার কারণ হিসেবে ব্রিজ ভেঙে পড়ার গুজবকেই মনে করা হচ্ছে। একই সঙ্গে পুণ্যার্থীদের প্রচণ্ড ভিড়ের জন্যও বেড়েছে নিহতের সংখ্যা। কেউ বলছেন, পুণ্যার্থীদের ভিড় সামলাতে এলাকায় পর্যাপ্ত সংখ্যক স্বেচ্ছাসেবক ছিল না। এ কারণে স্নানের সময় চরম বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়। আর তাতে পদদলিত হওয়ার ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার ভোর পৌনে পাঁচটা থেকেই মহাষ্টমী স্নান উৎসবের সূচনা হয়। তখন থেকেই ঢল নামে পুর্ণার্থীদের। স্নানের জন্য লাঙ্গলবন্দে ব্রহ্মপুত্র নদের ১৬টি ঘাট নির্ধারণ করা হয়। এর মধ্যে অন্যতম প্রধান রাজঘাটে পুণ্যার্থীদের বেশি চাপ সৃষ্টি হয়। কারণ হিসেবে জানা গেছে, রাজঘাটে স্নান করলে বেশি পুণ্য হয়। এ জন্য প্রচণ্ড ভিড়ের চাপে ও বেইলি ব্রিজ ভেঙে পড়ার গুজবে পুণ্যার্থীদের মধ্যে দেখা দেয় হুড়োহুড়ি আর প্রচণ্ড ধাক্কাধাক্কি। এ পরিস্থিতিতে রাজঘাট এলাকায় পদদলিত হয়ে সাতজন নারীসহ অন্তত ১০ জন মারা যান। মর্মান্তিক প্রাণহানির পর ঘটনাস্থলে যান নারায়ণগঞ্জ-৫ (শহর-বন্দর) আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান। তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে মরদেহ বাড়ি নিয়ে যাওয়া ও সৎকারের জন্য ২৫ হাজার টাকা করে নিহতদের পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দিয়েছেন। এ সময় সেলিম ওসমান বলেন, দীর্ঘদিন ধরে হরতাল অবরোধের কারণে মানুষ আবদ্ধ অবস্থায় ছিল। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বড় এ উৎসবটি লম্বা ছুটির মধ্যে পড়ায় অন্যবারের তুলনায় তিনগুণ পুণ্যার্থী এসেছে। তাছাড়া গরম বাড়ার আগেই স্নান শেষ করে চলে যাওয়ার তাড়া ছিল সবার মধ্যে। তাই ভিড়টা ছিল অস্বাভাবিক। এর ওপর ব্রিজ ভেঙে পড়ার গুজবকে কেন্দ্র করে শুরু হয় ধাক্কাধাক্কি। তবে পুণ্য স্নানে প্রাণহানির জন্য সেলিম ওসমান রাস্তার দুইপাশে অবৈধ দখলদারদেরও দায়ী করেছেন।
আত্মগোপনে থেকে বিএনপি সমর্থিত মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও শেষ পর্যন্ত তারা প্রকাশ্যে এসে নির্বাচনে অংশ নিতে পারবে কি না তা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে। কারণ আত্মগোপনে থাকা এসব নেতাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মামলা রয়েছে। ইতোমধ্যে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আগাম জামিন না নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে বিএনপি বলেছে- যেসব প্রার্থীদের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে বা যারা গ্রেপ্তারের ভয়ে আত্মগোপনে আছে তাদের বের হওয়ার সুযোগ দিতে হবে, যাতে তারা নির্বাচনে অংশ নিতে পারে। গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) যুগ্ম-কমিশনার মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, আগাম জামিন না নিয়ে কেউ আসন্ন ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রার্থী হলে বা প্রচারে অংশ নিলে, তার বিরুদ্ধে পুলিশ আইনানুযায়ী ব্যবস্থা নেবে।
উদীচীর আয়োজনে সত্যেন সেন গণসঙ্গীত উৎসব- বরাবরের মতোই আয়োজনের শুরুটা জাতীয় সঙ্গীতের সুরেলা আহ্বানে। সঙ্গে জাতীয় পতাকা আর উদীচীর পতাকা উত্তোলন। উদ্বোধন করেন লোকসঙ্গীত সাধক শিল্পী স্বপন কুমার হালদার। উদ্বোধনের আনুষ্ঠানিকতা শেষেই চমক। উদ্বোধনী মঞ্চের মধ্যভাগে বিধ্বস্ত প্রতিকৃতি। কোথাও মানুষের লাশ, কোথাও আবার পোড়া গাড়ির টুকরো, কোথাও আবার পোড়া ঘরের প্রতিচ্ছবি। আর চারপাশ থেকে কৃত্রিমভাবে উড়ছে ধোঁয়া। সঙ্গে কালজয়ী সব গণসঙ্গীত। নৃত্যে আর গীতে উদীচীর শিল্পীরা তুলে ধরলেন বর্তমান বাংলাদেশের সহিংসতা। এরপর অনুষ্ঠানের মঞ্চের আলোচনার বক্তারা দৃঢ়কণ্ঠে সহিংসতার বিরুদ্ধে সংস্কৃতিকর্মীসহ সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে লড়াইয়ের আহ্বান জানান।
আজ ২৭ মার্চ। রাজধানীর সূত্রাপুর মালাকারটোলা গণহত্যা দিবস। ১৯৭১ সালের ২৭ মার্চের অপারেশন সার্চলাইট নামে মধ্যরাতে লোহারপুরের মালাকারটোলার হিন্দু মহল্লার ঘুমন্ত মানুষের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েছিল পাক হানাদার বাহিনী। সেই কালরাতে নৃশংসশভাবে হত্যা করা হয়েছিলো ১৫ আদম সন্তানকে। ইতিহাসের সেই ক্ষতচিহ্ন নিয়ে আজো ডুকরে কাঁদে মালাকারটোলা, ডুকরে কাঁদে শহীদদের স্বজনরা। প্রজন্মের পর প্রজন্ম আসে, ক্ষমতার হাত বদলায় রাজ্য, কিন্তু মালাকারটোলায় যেন কোনো পরিবর্তন নেই ইট ও লোহার ব্যাপ্তি ছাড়া।
দল ম্যাচ জয় পরাজয় ড্র পয়েন্ট
নিউজিল্যান্ড ১২
অস্ট্রেলিয়া
শ্রীলংকা
বাংলাদেশ
ইংল্যান্ড
আফগানিস্তান
স্কটল্যান্ড
দল ম্যাচ জয় পরাজয় ড্র পয়েন্ট
ভারত ১২
দক্ষিণ আফ্রিকা
পাকিস্তান
ওয়েস্ট ইন্ডিজ
আয়ারল্যান্ড
জিম্বাবুয়ে
আরব আমিরাত

কলকাতার মিডিয়ায় কান্না

আয়োজন অনেক কিছুই করে রাখা হয়েছিল। ভারতকে ফাইনালে তোলার জন্য হেন কোন কাজ নেই যে করে নাই আইসিসি কিংবা ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। পুরো সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডের গ্যালারিকে পরিণত করা হয়েছিল ভারতীয় স্টেডিয়ামে। ভারতীয়রা নিশ্চিতই ছিল, তারা ফাইনালে উঠে যাচ্ছেই। অন্ততঃ আর কেউ না হোক, আইসিসি তো তাদের ফাইনালে তুলে দেবেই। কিন্তু, মওকা আইসিসিও এনে দিতে পারলো না। সিডনিতে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার দাপটের সামনে ভেজা বিড়ালের মতই মাথা নুইয়ে মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে আসতে হয়েছিল ভারতীয়দের। গ্যালারিতে সমর্থকদের মধ্যে উঠেছিল কান্নার রোল। চোখের পানি-নাকের পানি এক করে গ্যালারি থেকে তাদের বের হতে দেখেছিল সবাই।

সাবেকদের চোখে বিশ্বকাপ

শুরু ১৪ ফেব্রুয়ারী। যবনিকা হতে যাচ্ছে একদিন বাদে ২৯ মার্চ। লম্বা সময়ের বিশ্বকাপ কেমন হলো? বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়করা জানিয়েছেন, অন্য যেকোন বিশ্বকাপের চেয়ে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের বিশ্বকাপ তাদের মন ভরিয়ে দিয়েছে। আর এর বড় একটা কারণ ছিল বিরুদ্ধ কন্ডিশনেও বাংলাদেশের অভাবনীয় পারফরম্যান্স।

নিউজিল্যান্ডের চ্যালেঞ্জ বড় মাঠও

প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের স্বপ্নের ফাইনালে নিউজিল্যান্ড। আগামী ২৯ মার্চ অস্ট্রেলিয়াকে বধ করে প্রথমবারের মতো শিরোপা জেতার স্বপ্নটাও দেখছে কিউই শিবির। তবে এই ম্যাচে অনেক বাধাই আসতে পারে নিউজিল্যান্ডের সামনে। এর মধ্যে বড় চ্যালেঞ্জের নাম মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড (এমসিজি)। সহ-আয়োজক হওয়ায় এখন পর্যন্ত প্রতিটি ম্যাচই নিউজিল্যান্ড খেলেছে দেশের মাটিতে। যেখানকার স্টেডিয়ামগুলো অপেক্ষাকৃত ছোট। সেই তুলনায় ফাইনাল ম্যাচের ভেন্যু মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড অনেক বড়ই। চার-ছক্কা হাঁকাতে কিউই ব্যাটসম্যানদের বেশ বেগ পোহাতে হবে। সঙ্গে রয়েছে অসি পেসার স্টার্ক-হ্যাজলউডদের দুর্দান্ত বাউন্স আর সুইং। সব মিলিয়ে বড় মাঠ নিউজিল্যান্ডকে ভোগাতেও পারে।

ম্যাচ ফিক্স করতে সময় পায়নি...

গায়ক রুপম, এমনি মানসিক আঘাত পেয়েছেন যে, তিনি ছোটবেলায় শেখা ভুগোল ভুলে গিয়ে গুলে খেয়ে বাংলাদেশকে নতুন পাকিস্তান বলে গালাগাল করছেন। এ কথা জানতে পেরে লাদেন শিষ্য তালিবানরা তাকে পাকিস্তান দলের নতুন কোচ হিসেবে নিয়োগ দেবেন বলে ভাবছেন, কারন রুপম ছাড়া এরকম কথা গত ৪৪ বছরে কেবল গোলাম আজমই ভাবতে পেরেছিলেন।

সঙ্গীর আচরণে খটকা?

একটি সুন্দর ও স্বাভাবিক সম্পর্ক নিশ্চিন্তে রাখে উভয়কেই। স্বস্তি আর শান্তির আশ্বাস মেলে একে অপরের কাছ থেকে। মানুষের দাম্পত্য বা প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলার অন্যতম প্রধান কারণ হল সঙ্গীর সঙ্গে সব ব্যাপারে ভাগাভাগি করে নেয়া। কিন্তু সেই সম্পর্ক যদি কিছু ব্যাপারে চিন্তা বাড়াতে থাকে, তাহলে তাকে স্বাভাবিক সম্পর্ক বলা যায় না। সম্পর্কের খাতিরে কিছু বিষয় ধামাচাপা দিয়ে রাখতে চান অনেকে, অথচ তা হয়তো ভবিষ্যৎ বিকট বিষ্ফোরণের ইঙ্গিত। তাই কিছু বিষয়ে খটকা থাকলে বুঝে নেবেন আপনার সম্পর্কটি স্বাভাবিক নয়, নিতে হবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা।
আসন্ন ঢাকার বিভিক্ত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নিজ দলীয় মেয়র ও কাউন্সিলার প্রার্থীদের বিজয়ী করতে মরিয়া আওয়ামী লীগ। এমনকি এলক্ষ্য অর্জনে আচরণবিধির তোয়াক্কা করবেন না তারা। ইতিমধ্যে কেন্দ্র থেকে ১৫ টিম গঠন করা হয়েছে। দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের নেতা ও এলাকাভিত্তিক জাতীয় সংসদ সদস্যদের সমন্বয়ে টিমগুলো গঠন করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছেন সরকারের বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রীও। দলীয় সূত্রে এমনটাই জানা গেছে। নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী,জাতীয় সংসদ বা স্থানীয় সরকার নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রচারণায় এমপি-মন্ত্রীসহ কোনো ‘গুরুত্বপূর্ণ’ ব্যক্তি অংশ নিতে পারেন না। এমনকি নির্বাচনের আগে প্রার্থীদের কোনো অনুষ্ঠানেও তাদেরকে আমন্ত্রণ জানানো যাবে না। আচরণবিধি অনুযায়ী, গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি বলতে- প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, মন্ত্রী, চিফ হুইপ, ডেপুটি স্পিকার, বিরোধীদলীয় নেতা, সংসদ উপনেতা, বিরোধীদলীয় উপনেতা, প্রতিমন্ত্রী, হুইপ, উপমন্ত্রী বা তাদের সমমর্যাদার ব্যক্তি, সংসদ সদস্য ও সিটি করপোরেশনের মেয়রকে বোঝানো হয়েছে।

ডিসিসি দখলে মাঠে নামছেন মন্ত্রীরা

এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। সকল সঙ্কটকে সঙ্গী করেই চলছে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা। প্রতিদিনই হাজারো খারাপ খবরের মাঝে ফুটে উঠছে বাংলাদেশের সাফল্যের চিত্র। পাকিস্তানের ২৩ বছরে শোষণ-বঞ্চনা শেষে শূন্যহাতে পথচলা শুরু করে বাংলাদেশ। এরপর থেকেই শুধুই এগিয়ে যাওয়া। রাজনৈতিক অস্থিরতা, সামরিক শাসন, পারস্পরিক আস্থাহীনতা কিংবা অগণআন্ত্রিক রাজনীতির চর্চা সত্ত্বেও বাংলাদেশ প্রতিনিয়তই এগিয়ে যাচ্ছে। দুর্নীতিতে এক নম্বর হওয়ার পরও বাংলাদেশ পিছিয়ে পড়েনি, বিশ্বব্যাপী ফিরিয়ে এনেছে আস্থা। স্বাধীনতার ৪৫তম বছরে পা রাখার প্রাক্কালে সহজেই বলা যায়, বাংলাদেশ ধীর গতিতে এগিয়েছে। কিন্তু এখন গতি ক্রমবর্মান। অশিক্ষিত ও অশিক্ষিত কৃষক, পোশাক শ্রমিক, প্রবাসী শ্রমিকরাই বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় সবথেকে বড় ভূমিকা পালন করেছে। তাদের হাত ধরে আজ বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ, বাড়ছে রেমিট্যান্স। ব্যাংকের রিজার্ভ রেকর্ড পরিমাণ। সরকারি প্রতিষ্ঠান যেখানে ব্যর্থ, সেখানে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান দেখিয়েছে সাফল্য। রাষ্ট্রযন্ত্র যখন চিন্তিত, তখন ব্যক্তিচিন্তায় অর্জিত হয়েছে সাফল্য। প্রতিদিনই বিশ্বের কোন না কোন প্রান্তে বাংলাদেশি ছিনিয়ে নিচ্ছেন সাফল্যের মুকুট।

সঙ্কটেও এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের বিশেষ উপদেষ্টা ছিলেন। রাজনৈতিক পরিবার থেকে উঠে না এলেও গত তিন বছর থেকে রাজনীতির মাঠে বেশ পরিচিত মুখ। সমাজের প্রতিটি স্তরে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা গেলেই সুন্দরভাবে কিছু করা সম্ভব, সে স্বপ্নও দেখেন তিনি। স্বপ্নবাজ এ মানুষটি হলেন ববি হাজ্জাজ। তরুণ রাজনীতির মুখোচ্ছবি। লন্ডনের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে করেছেন পড়াশুনা। বিভিন্ন দেশের উন্নয়ন প্রকল্পে কাজ করেছেন প্রধান সমন্বয়কারী হিসেবে। সেসব অভিজ্ঞতাকে এখন দেশের জন্য কাজে লাগাতে চান তিনি। আর সে তাড়না থেকেই দেশকে কিছু দেয়ার আছে বলেও মনে করেন। তাই এবার ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছেন ববি হাজ্জাজ।

জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে চান ববি হাজ্জাজ

বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএডিসি) হিমাগারে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। চুক্তিবদ্ধ আলু চাষীদের কাছ থেকে বস্তা প্রতি পাঁচ কেজি করে আলু বেশি নিচ্ছেন হিমাগারের কর্মকর্তারা। ফলে লাখ লাখ টাকা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন কৃষকরা। তবে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা এই অনিয়মের কথা অস্বীকার করেছে বিএডিসি কর্তৃপক্ষ।

সরকারি হিমাগারের পাল্লায় ৬ কেজি ফের!