মঙ্গলবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৪ । ৮ আশ্বিন ১৪২১

জনসভামঞ্চে খালেদা জিয়া

সাবেক প্রধানমন্ত্রী, ২০ দলীয় জোট নেতা ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জনসভাস্থলে পৌঁছেছেন। মঙ্গলবার বিকেল পৌনে ৪টার দিকে তার গাড়িবহর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পৌঁছায়। বেগম জিয়ার সফর সঙ্গী রয়েছেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, আবদুস সালাম প্রমুখ। মঙ্গলবার পৌণে ১২টায় গুলশান-২ এর বাসভবন থেকে গাড়িবহর নিয়ে যাত্রাবাড়ী হয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দিকে অগ্রসর হন বেগম জিয়া। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সার্কিট হাউজে কিছুক্ষণ বিশ্রামের পর বিকেল চারটা ১০মিনিটে নিয়াজ মোহাম্মদ হাইস্কুল মাঠে (সরকারি কলেজ) স্থানীয় ২০ দল আয়োজিত জনসভাস্থলে উপস্থিত হন। এসময় জনসভায় উপস্থিত বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী ও সমর্থকরা তাকে স্বাগত জানায়। খালেদা জিয়াও সবাইকে হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানান। এ জনসভায় ২০ দলী জোট নেতা প্রধান অতিথি হিসেবে ভাষণ দেবেন।

জুলাই থেকে নতুন বেতন স্কেল

পে কমিশনরে প্রস্তাবনা অনুযায়ী আগামী অর্থবছরের জুলাই থেকে নতুন বেতন স্কেল বাস্তবায়ন করা হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) ও সাধারণ বীমা করপোরেশনের ২০ কোটি টাকার লভ্যাংশ হস্তান্তর অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ভাড়াটে খুনিদের নিয়ে বাবাকে হত্যা

বাবার দ্বিতীয় বিয়ে, পরিবারের সদস্যদের ভরণ-পোষণসহ পারিবারিক নানা কলহের জের ধরে নিজ বাবাকে হত্যার পরিকল্পনা করেন ছেলে মো. শাওন বেপারী (২৭)। ভাড়াটে খুনিদের সঙ্গে পরিকল্পিতভাবে বাবা শাহজাহান বেপারিকে (৫৫) হত্যা করে শাওন। মঙ্গলবার র‌্যাবের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এমনই তথ্য দিয়েছেন শাওন বেপারী ও তার সহযোগিরা। গত ১৬ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার রাতে শাহজাহান বেপারীকে গলা কেটে হত্যা করা হয়। রাতে র‌্যাব-৮ ফরিদপুর ক্যম্পের একটি দল মোবাইল ফোন ট্রাকিংয়ের মাধ্যমে হত্যকাণ্ডের মূলহোতা শাওন ও তার ৭ সহযোগিকে ফরিদপুর শহরের লক্ষ্মীপুর এলাকা থেকে আটক করে। আটককৃতরা হলেন- মৃত শাহজাহান এর ছেলে মো. শাওন বেপারী (২৭), মেয়ে কমলী বেগম (২৩), স্ত্রী রাশেদা বেগম (৪৫), ভাড়াটে সহযোগি একই এলাকার আব্দুল করিম মোল্যার ছেলে মো. শামীম রেজা (২১), মো. আব্দুল কাদের মোল্যার ছেলে আকমল মোল্যা (৩০), আব্দুস সালামের ছেলে মো. আজিজুল হক (১৯), মো. রমজান মোল্যার ছেলে মো. আহসান হাবিব রাজন (১৮), মো. রফিক মোল্যার ছেলে মো. মাহফুজ মোল্যা (২১)।
বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের বিভিন্ন ক্যাডারের শূন্য পদে প্রতিযোগিতামূলক বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে পূরণের জন্য যোগ্য প্রার্থীদের কাছ থেকে অনলাইনে আবেদনপত্র আহ্বান করা হয়েছে।
গুপ্তচর শব্দটিই ভীতিকর। এই বুঝি সবার অলক্ষ্যে ভয়ানক গোপন সংবাদটি গোপনে পাচার করে দিয়ে গোপনে চলে গেল গুপ্তচর। শোষণকেন্দ্রিক রাষ্ট্রব্যবস্থা গড়ে ওঠার সঙ্গে সঙ্গেই মূলত গুপ্তচরদের সৃষ্টি। প্রথমদিকে প্রাসাদের অভ্যন্তরে রাজা-বাদশার শত্রুদের গোপনে হত্যার কাজ করতো তারা। পরবর্তী সময়ে নির্দিষ্ট রাষ্ট্র বা সংস্থার হয়ে গোপনীয়তা বজায় রেখে অন্যের গোপনীয়তা যারা নষ্ট করে দিতো গুপ্তচর। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর শীতল যুদ্ধের সময় গুপ্তচরদের দৌরাত্ম দেখা যায় দেশে দেশে। আগে গুপ্তচররা শুধু তথ্য পাচারের কাজ করতো। কিন্তু শীতল যুদ্ধচলাকালীন সময়ে ইসরায়েল তার গুপ্তচরদের প্রথমবারের মতো ধ্বংসাত্মক কাজে ব্যবহার করতে শুরু করে। ১৯৭২ সালের অলিম্পিককেন্দ্রিক এক হত্যাকাণ্ডকে ঘিরে পরবর্তী কুড়ি বছর ধারাবাহিক অসংখ্য গুপ্তহত্যা যার স্বাক্ষ্য বহন করে।
দা গ্লোবাল পিস ইনডেক্স বা বিশ্ব শান্তি সূচকের প্রকাশিত তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৯৮। শান্তির দিক দিয়ে মাঝামাঝি অবস্থানে থাকলেও ভারত, পাকিস্তান এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের চেয়েও এগিয়ে রয়েছে এটি। ২২টি নির্দেশিকার ওপর ভিত্তি করে মঙ্গলবার ১৬২টি দেশের এই তালিকা প্রকাশ করেছে বিশ্ব শান্তি সূচক। গত আট বছর ধরে তারা এই শান্তিপ্রিয় দেশের তালিকা প্রকাশ করে আসছে।
ইসরায়েলের গুপ্তচর সংস্থা মোসাদের এককালের দুর্ধর্ষ ও সুপরিচিত গুপ্তচর মাইক হারারি গতকাল ২২ সেপ্টেম্বর মৃত্যুবরণ করেছেন। বিদেশের মাটিতে ফিলিস্তিনি সশস্ত্র যোদ্ধাদের ওপর আততায়ীরূপে হামলার বেশ কিছু ঘটনার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন তিনি। ১৯৭২ সালে জার্মানির মিউনিখে অলিম্পিকে অংশগ্রহণকারী ইসরায়েলি দলের ওপর হামলা চালায় ‘ফিলিস্তিনের’ সশস্ত্র যোদ্ধারা। তাদের চিহ্নিত করে হত্যায় বড় ভূমিকা ছিল হারারির। সে সময়ে ইসরায়েলে ব্যাপক আলোচিত হয়েছিলেন তিনি। ওই অভিযানের নাম ছিল ‘র‌্যাদ অব গড’ বা ঈশ্বরের ক্রোধ।
প্রতিটি জীবকোষের জীবন সার্বক্ষণিকভাবে পুষ্টির উপর নির্ভরশীল। পানি, শর্করা, আমিষসহ অন্যান্য আবশ্যিক পুষ্টি উপাদানের চেয়েও অক্সিজেনের গুরুত্ব অনেক বেশি। কারণ, আমাদের শরীরে অন্যান্য পুষ্টি উপাদানের মজুত রয়েছে কয়েক দিন থেকে সপ্তাহের, কিন্তু অক্সিজেনের মজুত রয়েছে মাত্র চার মিনিটের। বাতাসের মাধ্যমে মানবদেহে অক্সিজেন প্রবেশ করায় ফুসফুস, সেখান থেকে রক্ত তা শোষণ করে, আর হৃদপিণ্ড সেই রক্ত পাম্প করে প্রতিটি কোষে সঞ্চালিত করে। কোনো কারণে ফুসফুসের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেলে তথা Respiratory Arrest হলে ৪ মিনিট পর শরীরের অক্সিজেনের মজুত নিঃশেষ হয়ে যায়। তখন শক্তির অভাবে হৃদপিণ্ড তার কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়, যাকে Cardiac Arrest বলা হয়। এ দু’টি অঙ্গতন্ত্রের Arrest হলে তাকে Clinical Death বলা হয়। এই আপাত মৃত্যুর ৪ মিনিট পর থেকে শুরু করে আড়াই ঘণ্টার মধ্যে শরীরের প্রতিটি কোষের স্থায়ী মৃত্যু বা Biological Death হয়ে থাকে।
সন্দেহ থেকেই এবার পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল সাংসদ আহমেদ হাসান ইমরানের আল কায়েদাযোগের সুতো খুঁজতে নেমেছে বাংলাদেশের গোয়েন্দা সংস্থা। মঙ্গলবার আনন্দবাজার পত্রিকার এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য দেয়া হয়। বাংলাদেশের বিশিষ্ট সাংবাদিক এবং মানবাধিকার কর্মী শাহরিয়ার কবীরের কথাতেও এর সমর্থন পেয়েছে পত্রিকাটি।

‘এ’ দলের সংগ্রহ ২৫৮

প্রথম চার দিনের ম্যাচে সাকলাইন সজীবের ঘূর্নি জাদুতে জয় পাওয়ার পর দ্বিতীয় ম্যাচেও একই লক্ষ্যে ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ে এ দলের বিপক্ষে লড়ছে বাংলাদেশ এ দল। প্রথম ইনিংস শেষে বাংলাদেশ এ দলের সংগ্রহ ২৫৮ রান। জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোচট খেয়েছে জিম্বাবুয়ে এ দল। টসে জিতে জিম্বাবুয়ে এ দলের অধিনায়ক ভুসিমুসি সিবান্দা ব্যাটে আমন্ত্রণ জানায় নাইম ইসলামদের। ব্যাট করেতে নেমে ওপেনার শাহরিয়ার নাফিস ও সাদমান ইসলামের ব্যাটিং নৈপুণ্যে শুরুটা ভালই ছিল টাইগারদের। কিন্তু এই দুই ওপেনারের বিদায়ের পর আর প্রতিরোধ গড়তে পারেনি কোন ব্যাটসম্যানই। ফলে ওপেনিং জুটিতে ১৫৫ রান সংগ্রহের পরও বাংলাদেশ এ দলের ইনিংস থেমে গেছে ২৫৮ রানেই।

ভারতীয় ফুটবলের পুনর্জন্ম দেখছেন সৌরভ

শুরুর আগেই হইচই ফেলে দিয়েছে আইএসএল (ইন্ডিয়ান সুপার লিগ)। যে টুর্নামেন্টে ক্রিকেট-বলিউড মিলে মিশে একাকার হয়ে গেছে। কোন দলের মালিক মাস্টার ব্লাস্টার শচীন টেন্ডুলকার আবার কোন দলের মালিক বলিউড হার্টথ্রব রণবীর কাপুর কিংবা অভিষেক বচ্চন। এই যেমন অ্যাটলেটিকো ডি কলকাতার অন্যতম মালিক প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী। ইতিমধ্যে অ্যাটলেটিকো ডি কলকাতা দলকে অনুশীলনের জন্য পাঠানো হয়েছে স্পেনে। কেন সেখানে পাঠানো হয়েছে সেই ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে সৌরভ বলেন, ‘বড় ফুটবলারদের সঙ্গে খেললে মানসিকতার উন্নতি হয়। মনস্তত্বে প্রভাব পড়ে। এজন্যই আমরা কলকাতাকে স্পেনে অনুশীলন করতে পাঠিয়েছি।’

মালিককের শ্বশুরবাড়িতে হাফিজরা

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ টি-টোয়েন্টিতে প্রাক্তন পাকিস্তান অধিনায়ক শোয়েব মালিক খেলছেন অস্ট্রেলিয়ার দল হোবার্ট হ্যারিকেনের হয়ে। ম্যাচগুলো হচ্ছে হায়দ্রাবাদের রাজিব গান্ধি স্টেডিয়ামে। মালিকের শ্বশুরবাড়িও সেখানে। এই হায়দ্রাবাদেই আবার মোহাম্মদ হাফিজের নেতৃত্বে খেলছে পাকিস্তানের দল লাহোর লায়ন্স। শ্বশুর বাড়ির এত কাছে এসে হাফিজদের শ্বশুরবাড়ি নিয়ে যাবেন না মালিক, তা কী হয়? বউ সানিয়া মির্জা বাড়ি না থাকলেও শাশুড়ি জামাইয়ের পাকিস্তান সতীর্থদের আদর-যত্নের কোন ত্রুটি রাখেননি।

টাক মাথায় মোশাররফ

এবার টাক মাথার মোশাররফ করিমকে দেখা যাবে আসছে ঈদের একটি নাটকে। নাটকটির নাম ‘সাধারণ জ্ঞান’। পলাশ মাহবুবের রচনায় নাটকটি নির্মাণ করেছেন হাসান মোরশেদ। শুধু টাক মাথা নয়, এ নাটকে সাত রকম গেট আপে অভিনয় করেছেন সময়ের জনপ্রিয় এ অভিনেতা।
এদের হাতের মুঠোয় আলাদিনের দৈত্য, জিন-পরী, মঙ্গল-অমঙ্গলের অশরীরি আত্মা! এরা নক্ষত্রের অবস্থান দেখে বলে দিতে পারেন ভাগ্য ও ভবিষ্যৎ, বলে দিতে পারেন কারো নিয়তির উপর গ্রহের প্রভাব। আবার শনির আছর ছাড়াইতে হলে তাদেরই শরণাপন্ন হতে হবে। তারা জানেন বিভিন্ন পাথরের গুণাগুণ। বিশল্যকরণীর মতো ক্ষমতাসম্পন্ন অষ্টধাতুর রহস্য! তাদের পরিচয় কেউ গুরু, জ্যোতিষ সম্রাট, কেউবা মুশকিলে আসান। নামের আগে পিছে নানা বিশেষণ। তবে তাদের আসল উদ্দেশ্য মানুষ ঠকানো। এটিই তাদের পেশা। এসব ভণ্ড প্রতারকরা রাতারাতি গড়ে তুলেছেন সম্পদের পাহাড়। আলিশান বাড়ি, অত্যাধুনিক গাড়ি। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে একাধিকবার গ্রেপ্তার পর কিছুদিন জেল খেটে আবারও তারা জায়গা পরিবর্তন করে এই প্রতারণার ব্যবসা করে। তেমনি একজন প্রতারক জ্যোতিষরাজ লিটন দেওয়ান চিশতী ওরফে লিটন দেওয়ান ওরফে পাগলা লিটন।

মানুষ ঠকিয়ে কোটিপতি

রাজধানীর মিরপুরবাসীর ভোগান্তির যেন শেষ নেই। একদিকে ওয়াসা, ডেসা, তিতাস ও টিঅ্যান্ডটির দফায় দফায় অপরিকল্পিত খোঁড়াখুঁড়ি অন্যদিকে কার্পেটিং, পাথরকুচি ও ইট উঠে যাওয়ায় এখানকার সড়কগুলো হয়ে পড়েছে চলাচলের অযোগ্য। এই অবস্থায় সীমাহীন দুর্ভোগে পড়েছেন এখানকার বাসিন্দারা। সামান্য বৃষ্টিতেই সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা। পড়তে হয় দুর্ভোগে। মিরপুরবাসীর এই দুর্ভোগ, বিড়ম্বনা ও কষ্ট যেন নিত্যদিনের। বছরের পর বছর তাদেরকে এমন দুর্ভোগ পোহাতে হলেও ডিসিসি, ওয়াসা ও তিতাস নির্বিকার। প্রতিষ্ঠানগুলোর কার্যত নজরদারি নেই। একের পর এক অভিযোগ করার পরেও কোনো কাজ হচ্ছে না। সরেজমিন দেখা গেছে, মিরপুর, কালসি, রূপনগর, আগারগাঁওয়ের আশপাশের এলাকা ও বেড়িবাঁধ সংলগ্ন রাস্তাগুলো চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। ১০ নম্বর থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত বেশ কিছুদি

মিরপুরবাসীর দুর্ভোগের শেষ কোথায়?

কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারে জেএমবির কারাবন্দী নেতা সাইদুর রহমান ও আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের প্রধান মুফতি জসিম উদ্দিন রাহমানীর মধ্যে গোপন সমঝোতা বৈঠক হয়েছে। সেখানে তারা এক সঙ্গে কাজ করার পরিকল্পনা করে তা বাস্তবায়নের জন্য নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছে। এ বার্তা দুই শতাধিক কর্মীর কাছে পৌঁছেও দেয়া হয়েছে। সংগঠনকে দ্রুত কার্যকর করে কথিত খিলাফত বাস্তবায়নের জন্য আর্ন্তজাতিক জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করার নির্দেশ দিয়েছেন নেতারা। এ নির্দেশনা অনুযায়ীই একটি অংশের নেতা আবদুল্লাহ আল তাসনীম ওরফে নাহিদ সহযোগীদের নিয়ে তৎপরতা শুরু করে। পরে তারা জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) সঙ্গে যোগাযোগ করে। সংগঠনকে কার্যকর করতে তারা শিক্ষা ব্যবসাও শুরু করতে চাইছিল।

কারাগারে বৈঠক, বিদ্বেষীদের ‘কতলে’ একজোট!

ছাত্রনেতারা জানান, যোগ্যতা যাই থাকুক, অতীতেও দায়িত্বপ্রাপ্তদের পছন্দের অনুসারীরাই পেয়েছেন বড় বড় পদ। আবার যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও সম্মানজনক পদ পাননি অনেকেই। ছাত্রদল কর্মীরা জানান, সাংগঠনিক ও সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক পদে যে তিনজনের নাম প্রাথমিকভাবে চূড়ান্ত করা হয়েছে তারা তিনজনই বিবাহিত।

বিভক্ত ছাত্রদল, সংঘর্ষের আশঙ্কা